নিজস্ব প্রতিনিধি->>

পরশুরামে চাঞ্চল্যকর দোকান কর্মচারীকে হত্যা মামলার অন্যতম আসামী মির্জানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ভুট্টুকে (৪৫) টঙ্গীর চেরাগআলী থেকে বুধবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে পরশুরাম থানায় হস্তান্তর করেছে র‌্যাব।

চট্টগ্রাম পতেঙ্গাস্থ র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো. নুরুল আবছার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পরশুরামে দোকান কর্মচারী চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার আসামী নুরুজ্জামান ভুট্টোকে অভিযান চালিয়ে গাজীপুর জেলার টঙ্গীর চেরাগআলী থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭ এর সদস্যরা। গ্রেপ্তারকৃত আসামী বিরুদ্ধে ফেনীর পরশুরাম থানায় একটি হত্যা মামলাসহ দুইটি মামলা রয়েছে।

গ্রেপ্তার নুরুজ্জামান ভুট্টু ফেনী জেলার পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়নের সত্যনগর গ্রামের মো. মোস্তফা মিয়ার ছেলে। তিনি মির্জানগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধঅরণ সম্পাতক ও সদ্য অনুষ্ঠিতব্য (তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন) মির্জানগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হয়েছেন।

পরশুরাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ খালেদ দাইয়ান জানান, গত ২৩ ডিসেম্বর ফেনীর পরশুরাম উপজেলার দক্ষিন কোলাপাড়া গ্রামে শাহজালাল বেকারীর সংলগ্ন আবু বকর সিদ্দিক ফিস ফিড দোকানের সামনে শাহীন চৌধুরীকে (৬৫) দোকানের পাওনা টাকা চাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় তার স্ত্রী ফিরোজা বেগম (৫০) বাদি হয়ে এজহার নামীয় ৬ জন ও অজ্ঞাতনামা ৬/৭ জনকে আসামী করে পরশুরাম থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় চেয়ারম্যান ভুট্টু এজহার নামীয় ২নং আসামী। ইতোমধ্যে ওই মামলায় এজহার নামীয় ৪ জনসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে হত্যায় নিজের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে দুই আসামী আদালতে স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দি দিয়েছে।

Sharing is caring!