আদালত প্রতিবেদক->>

ছাগলনাইয়ায় অপহরণের পাঁচ দিন পর উদ্ধার কলেজ ছাত্রীকে (১৭) আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেছে। মঙ্গলবার ফেনীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট শামসাদ জাহান খানের আদালতে ২২ ধারায় দেওয়া জবানবন্দিতে তাকে (ছাত্রী) জোরপূর্বক অপহরণ করা হয়েছে বলে আদালতকে অবহিত করে। পরে তাকে বাবা-মায়ের হেফাজতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে গ্রেপ্তার যুবক সারওয়ার হোসেনকে (২১) আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার আমজাদহাট ইউনিয়নের দক্ষিন ধর্মপুর গ্রামের আলী আহম্মদের ছেলে।

পুলিশ জানায়, গত ১৮ নভেম্বর সকাল ১০টার দিকে ওই ছাত্রী স্থানীয় কলেজে যাওয়ার সময় আসামী সারওয়ার হোসেনের নেতৃত্বে তার সহযোগীরা ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ছাগলনাইয়া থানায় একটি মামলা করেন।

ছাগলনাইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ওই অপহরণকারীর অবস্থান চিহ্নিত করে সোমবার রাতে ফেনী পৌরসভার একাডেমি এলাকার একটি বাসা থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার ও অপহরণকারী সারওয়ার হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

Sharing is caring!