ফুলগাজী প্রতিনিধি->>

ফুলগাজীতে যাচাই-বাছাইয়ের উদ্দেশ্যে ৮৩ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার সাক্ষাৎকার নেওয়া শুরু হয়েছে। বুধবার থেকে উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) পাঠানো তালিকাভুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সাক্ষাৎকার শুরু হয়েছে।

জামুকার এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তালিকাভুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের লাল মুক্তিবার্তা তালিকাভুক্ত তিন জন সহযোদ্ধার সাক্ষ্য ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র উপস্থাপন করতে হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফেরদৌসী বেগম জানান, ফুলগাজী উপজেলায় যাছাই-বাছাইয়ে দুদিনে ৮৩ জনের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হবে। ৮৩ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে প্রথম দিনে ৪০ জনের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার আরও ৪৩ জনের সাক্ষাৎকার নেওয়া হবে।

ফুলগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফেরদৌসী বেগম জানান, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)র ক্ষমতা বলে জেলা প্রশাসক মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাইয়ে তিন সদস্যের একটি কমিটি করছেন। এতে নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সদস্য সচিব হিসেবে থাকছেন। এছাড়া সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ মহিউদ্দিন চৌধুরীকে (সিনিয়র এএসপি অব.) ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার তাজুল ইসলামকে সদস্য করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয় প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রণয়নে বাংলাদেশের প্রত্যেকটি উপজেলায় এই যাচাই বাছাই কমিটি গঠন করেন। তারই অংশ হিসেবে ফুলগাজী উপজেলার মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই বাছাই করতে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

Sharing is caring!