অনলাইন ডেস্ক->>

পাত্র সন্তানধারণে সক্ষম কিনা তা জানতে পাত্রীর বাবা ছেলেটির স্পার্মকাউন্টের রিপোর্ট চাইলেন। নজিরবিহীন এই ঘটনাটি ঘটেছে শহর কলকাতায়। পার্ক স্ট্রিটের বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা. ইন্দ্রনীল সাহা এই ঘটনার কথা শুনিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন, এক যুবক তাঁর কাছে আসে স্পার্মকাউন্টের রিপোর্ট করার জন্য।

ওই যুবক জানান যে, তাঁর হবু শ্বশুর এই রিপোর্ট দাবি করেছেন মেয়ের বিয়ে দেয়ার আগে। অর্থাৎ তিনি দেখে নিতে চান যে, পাত্র সন্তান উৎপাদনে সক্ষম কিনা। এর আগে বিয়ে নিয়ে থ্যালাসেমিয়া টেস্ট, ব্লাড টেস্ট এর কথা শোনা গেলেও এই স্পার্মকাউন্টের টেস্ট এই সর্বপ্রথম।

অল বেঙ্গল মেন্স ফোরামের সভানেত্রী নন্দিনী ভট্টাচার্য এর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছেন, এরপর কি পাত্রপক্ষ মেয়ের ফেলোপিয়ান টিউবের পরীক্ষা চাইবে? সম্পর্কের ক্ষেত্রে এগুলো প্রয়োজনীয় হতে পারে না। কলকাতায় এই ধরনের দাবি ওঠায় চমকিত সারা দুনিয়া।

Sharing is caring!