বিনোদন ডেস্ক->>

ছোট পর্দায় যে ক’জন অভিনয় শিল্পী তাদের অভিনয়শৈলী দিয়ে দর্শকদের মন জয় করেছেন তাদেরই একজন রোকেয়া প্রাচী। তার সাবলীল অভিনয় শুধু ছোট পর্দায় মুগ্ধতা ছড়ায়নি রূপালী পর্দায় জীবনধর্মী চলচ্চিত্রেও রয়েছে তার সরব উপস্থিতি। যার অভিনয়ের প্রশংসা দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও কুড়িয়েছে।

‘মাটির ময়না’ ছবিটির কথা সিনেমা দর্শকরা আজও ভুলতে পারেননি। কেমন আছেন, কি করে সময় পার করছেন জানতে মুঠোফোনে আলাপ হলো রোকেয়া প্রাচীর সঙ্গে। তিনি বলেন, শারীরিকভাবে সুস্থ আছি কিন্তু করোনার ভয়াবহতায় মাঝে-মধ্যে মন খারাপ হয়ে যায়। যে কোনো পেশার মানুষেরই দীর্ঘ সময় ঘরবন্দি হয়ে থাকা সত্যিই কষ্টকর। এই অতি মারি শুধু আমাদের আর্থিকভাবেই ক্ষতি করেনি, সঙ্গে মানসিক আঘাত করেছে।

অনেক শিল্পীই তো করোনাকালীন সময়ে অল্পবিস্তর কাজ করছেন। আপনার কাজের কথা জানতে চাই। প্রাচী বলেন, সত্যি বলতে এই করোনাকালীন আমি কোনো কাজই করিনি। আমার দুই মেয়েকে নিয়ে বাসায় থাকছি। সতর্ক রয়েছি। বিশেষ কোনো প্রয়োজন ছাড়া বের হই না। শুধু বেশকিছু চ্যানেলে মহিলা আওয়ামী লীগের টকশো অনুষ্ঠান ভার্চ্যুয়ালি অংশ নিয়েছি। আর ব্যক্তিগতভাবে আমার যতটুকু সামর্থ্য তার মধ্য থেকে অসহায় মানুষদের সহযোগিতা করেছি। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে বেশকিছু নাটক নির্মাণ করেছি, আশা রাখি এই দুর্যোগ শেষ হলে বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার করা হবে।

এই অবসর সময় বেশকিছু চিত্রনাট্য ও সিরিয়াল নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আশা রাখি পরিস্থিতি ঠিক হলে কাজে নেমে পড়বো। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আমার নিজস্ব প্রডাকশন রোকেয়া প্রাচীর ব্যানারে ৪টা নাটক তৈরি হয়েছে।

এগুলো হলো- গৌরবের সন্তান, আত্মপরিচয়সহ আরও দু’টি নাটক। নাটকগুলো প্রযোজনা করেছেন আবুল বশীর আহমেদ।

প্রসঙ্গত, গুণি অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলার কৃতি সন্তান। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি ফেনী-৩ আসন থেকে নির্বাচন করতে দলীয় মনোনয়ন চেয়ে এলাকায় ব্যাপক গণসংযোগ করেছিলেন।

Sharing is caring!