বিশেষ প্রতিবেদক->>

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষীক সিরিজের আগে ব্যাট নিয়ে বড় ধাক্কা খেলেন বাংলাদেশ অলরাউন্ডার ফেনীর ছেলে সাইফুদ্দিন। নিজের প্রিয় ভাঙ্গা ব্যাট গ্রহণ করতে হয়েছে তাকে। কুরিয়ার সার্র্ভিস কোম্পানি এসএ পরিবহনকে দায়ী করে সাইফুদ্দিন বলেন কোম্পানির গাফিলতির কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে।

বাংলায় একটি বহুল প্রচলিত প্রবাদ আছে, শখের তোলা লাখ টাকা। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের থেকে নেওয়া মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের ব্যাটটিও তেমন। সেই শখের ব্যাট ভেঙে ফেলেছে কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠান এসএ পরিবহন।

সদ্য সমাপ্ত ডিপিএল এ জাতীয় দলের যে কয়জন আলো ছড়িয়েছেন, সাইফউদ্দিন তাদের মধ্যে অন্যতম-এটি বলা যেতেই পারে। বল হাতে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের পাশাপাশি ব্যাট হাতেও সুযোগ বুঝে ঝড় তুলেছেন এই অলরাউন্ডার। যে ব্যাট দিয়ে খেলে আবাহনীর চ্যাম্পিয়ন শিরোপা জয়ের পথে ভূমিকা রেখেছেন, সেই ব্যাটই ভেঙে গেল কুরিয়ার সার্ভিসের অবহেলায়।

ডিপিএল শেষ করে পরিবারের সাথে সময় কাটাতে নিজ বাড়ি ফেনী এসেছিলেন সাইফউদ্দিন। প্রিয় সেই দুটো ব্যাট সামান্য রিপেয়ার (নিয়মিত টিউনিং ও ওজন কমানো) করার লক্ষ্যে ফেনী থেকে এস এ পরিবহনের মাধ্যমে রাজশাহীতে পাঠিয়েছেন তিনি। কিন্তু সেখানে ব্যাট গ্রহণের পর ব্যাট ভাঙা পাওয়া যায়। ফেনীতে কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠান এসএ পরিবহনে কথা বলার পর সেটির দায় নিতেও অস্বীকৃতি জানায় কর্তৃপক্ষ।

রাজশাহীতে শাখা ব্যবস্থাপককে কল দিয়ে না পাওয়ায় পরবর্তীতে ফেনী শাখায় জানানো হয়।

এনিয়ে সাইফউদ্দিন বলেন, ‘ভীষণ মন খারাপ ভাই, ব্যাট গুলো অনেক প্রিয় আমার, ওয়েস্টইন্ডিজ এর সাথে গত হোম সিরিজের সময় সাকিব ভাই থেকে ব্যাট দুটো নিয়েছিলাম, এস এ পরিবহনের মাধ্যমে পাঠালাম যেনো নিরাপদে পৌঁছায়।’ একটি ৪০ হাজার ও অন্যটি ৩৫ হাজার টাকায় কেনা ব্যাট গুলো জিম্বাবুয়ে সফরের জন্য টিউনিং ও ঠিকঠাক করার জন্যই রাজশাহী পাঠিয়েছিলেন, কিন্তু ঠিক করার বদলে ভাঙা ব্যাটই পেলেন!

এসএ পরিবহনের এমন দায়িত্বহীনতা ও গড়িমসিতে ক্ষোভ ঝরে পড়ে সাইফউদ্দিনের কণ্ঠে, ‘তাদের পরিবহনে থাকা অবস্থায় ব্যাটের ক্ষতি হয়েছে, সুতরাং এর ক্ষতিপূরণ তাদেরই দেওয়া উচিত, উল্টো তারা নানা অজুহাত দেখাচ্ছে, তাদেরকে চিঠি দিয়ে জানাতে বলছে, আরও নানা কথা, একেতো লকডাউন চলছে, জিম্বাবুয়ে সফরের অল্প কদিন বাকি, এর মধ্যে কিভাবে কি করবো বুঝে উঠছি না, একটি পেশাদার পণ্যবাহী প্রতিষ্ঠান হিসেবে তাদের নিজ থেকেই এটির সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া উচিত।’

সব ঠিক থাকলে ৯ জুলাই ওয়ানডে ও টি টোয়েন্টি দলের সঙ্গে যোগ দিতে জিম্বাবুয়ের পথে ঢাকা ছাড়বেন তিনি।

এদিকে ফেনী এস এ পরিবহনের ম্যানেজার আতিকুর রহমান জানান, লিখিত আকারে সাইফউদ্দিন অভিযোগ জানালে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন, ‘এটি একটি দুর্ঘটনা। যা আমাদের নিয়ন্ত্রনে নেই। তিনি লিখিত অভিযোগ করলে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’

আমরা সাইফউদ্দিন সাহেবকে বলেছি লিখিত আকারে বিষয়টি জানাতে। উনি জানালে প্রতিষ্ঠান ব্যবস্থা নিতে পারে। কারণ দুর্ঘটনার মধ্যে জিনিসটা নষ্ট হয়েছে, আমাদের কোনো হাত ছিল না।’ এই ব্যাট ভাঙ্গার ক্ষতিপূরণ প্রসঙ্গে কোন সদুত্তর দিতে পারেননি এস এ পরিবহনের এই ব্যবস্থাপক। তিনি বলেন, ক্ষতিপূরণ দেওয়ার এখতিয়ার আমার নেই। লিখিত আকারে দিলে প্রতিষ্ঠান ভেবে দেখতে পারে কী করবে।’

Sharing is caring!