স্পোর্টস ডেস্ক->>

বিশ্বকাপ হোক কিংবা আঞ্চলিক টুর্নামেন্ট, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার দ্বৈরথ মানেই তুমুল উন্মাদনা। সমর্থকরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে শুরু করে বিতর্ক, এমনকি অতি উৎসাহে কখনো মজার ছলে বিতর্ক রূপ নেয় মারামারিতেও।

নান্দনিক, উপভোগ্য এক ফুটবল ম্যাচের প্রতীক্ষায় তাই প্রহর গুনতে থাকে ফুটবলপ্রেমীরা।

ফুটবলপ্রেমীদের সেই প্রতীক্ষার অবসান ঘটতে পারে এবারের কোপা আমেরিকায়। কিন্তু সম্ভাবনা আসলে কতটুকু? সত্যিই কি মাঠের লড়াইয়ে মুখোমুখি হবেন মেসি-নেইমারা?

চলতি কোপায় এখন পর্যন্ত সবগুলো ম্যাচ জিতে নিজেদের গ্রুপে শীর্ষস্থান নিশ্চিত করে শেষ আটে গেছে ব্রাজিল। আরেক গ্রুপে তিন ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে আর্জেন্টিনাও। ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে প্যারাগুয়ে। চার ম্যাচে ৫ পয়েন্ট নিয়ে চিলি আছে তৃতীয় স্থানে।

শুক্রবার ‘এ’ গ্রুপের তলানির দল বলিভিয়াকে ২-০ গোলে হারানো উরুগুয়ের পয়েন্ট ৪, তারা আছে চার নম্বরে। বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার ভোরে এই গ্রুপের শেষ রাউন্ডে আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হবে বলিভিয়া। এছাড়া প্যারাগুয়ে খেলবে উরুগুয়ের বিপক্ষে।

অন্যদিকে ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল কোয়ার্টার-ফাইনালে খেলবে ‘এ’ গ্রুপের চতুর্থ হওয়া দলের বিপক্ষে। পয়েন্ট টেবিলের বর্তমান অবস্থা অনুযায়ী শেষ আটে লুইস সুয়ারেসের উরুগুয়েকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেতে পারেন নেইমাররা। তবে উরুগুয়ে যদি প্যারাগুয়েকে হারাতে পারে, তাহলে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ হবে চিলি।

ব্রাজিল কোয়ার্টার-ফাইনালে জিতলে শেষ চারে তারা মুখোমুখি হবে প্রথম কোয়ার্টার-ফাইনালের বিজয়ীর সঙ্গে। আর্জেন্টিনা শেষ ম্যাচে হোঁচট খেলেও অন্তত গ্রুপ রানার্সআপ হবে। ফলে, ফাইনালের আগে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচ হওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

কোপা আমেরিকার গত আসরে অবশ্য সেমিফাইনালেই মুখোমুখি হয়েছিল ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। ওই ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছিল ব্রাজিল। এরপর ২০১৯ সালের নভেম্বরে প্রীতি ম্যাচে ১-০ গোলে জিতে যায় আর্জেন্টিনা। এবারের কোপায় দেখা না হলে চলতি বছরের নভেম্বরে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই লাতিন প্রতিবেশী।

Sharing is caring!