শহর প্রতিনিধি->>

ফেনীতে একসঙ্গে জন্ম হওয়া চার কন্যাসন্তানকে নিয়ে সুস্থ অবস্থায় বাড়ি ফিরেছেন মা সালমা আক্তার (২৪)। বৃহস্পতিবার দুপুরে ফেনীর ক্লিনিক থেকে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে নবজাতক ও প্রসূতিকে।

সালমা আক্তার ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার জিএম হাট ইউনিয়নের শরিফপুর গ্রামের সৌদিপ্রবাসী মো. আলম পাটোয়ারীর স্ত্রী।

ফেনী শহরের পশ্চিম ডাক্তারপাড়ার হায়দার ক্লিনিকের ব্যবস্থাপক নুরুল আফসার ফোরকান বলেন, মা ও চার শিশু সবাই সুস্থ থাকায় বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। এরপর তারা নিজেদের বাড়ি ফিরে যায়। তিনি বলেন, একসঙ্গে চার সন্তান জন্মের খবরটি শোনার পর বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ হাসপাতালে ভিড় জমায়। তবে তাঁরা নবাগত সন্তান ও তার মাকে কেবিনে থাকার ব্যবস্থা করে দেন।

গত সোমবার (১৪ জুন) বিকেল ৫টার দিকে ফেনী শহরের পশ্চিম ডাক্তার পাড়ার একটি ক্লিনিকে অস্ত্রোপচারের (সিজার) মাধ্যমে চার কন্যাসন্তানের জন্ম দেন সালমা।

গৃহবধূর দেবর মো. আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারী বলেন, এর আগে দুটি সন্তানের কথা চিকিৎসক ও আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে তাঁরা নিশ্চিত হয়েছিলেন। সোমবার দুপুরে সালমার প্রসব ব্যথা শুরু হলে তাঁকে শহরের হায়দার ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে চিকিৎসক তাঁর অবস্থা দেখে অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন। বিকেল ৫টার দিকে চিকিৎসক তাহমিনা সুলতানা অস্ত্রোপচার করে একে একে চারটি কন্যাসন্তান বের করেন। এর আগে ওই গৃহবধূর চার বছরের একটি ছেলেসন্তান রয়েছে।

আনোয়ার হোসেন আরও বলেন, একসঙ্গে চারটি মেয়ে পেয়ে তাঁদের পরিবারের সবাই খুশি। তাঁদের যৌথ পরিবারে চার সন্তানের লালনপালনে কোনো সমস্যা হবে না।

চিকিৎসক তাহমিনা সুলতানা বলেন, ওই গৃহবধূ ও চার নবজাতক সুস্থ আছে। সে কারণে তাদের ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

Sharing is caring!