ফুলগাজী প্রতিনিধি->>

ফুলগাজীতে তৃষ্ণা রানী দাস (১৮) নামে এক কলেজ ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার বিকালে ফুলগাজী সদর ইউনিয়নের কিসমত বিজয়পুর গ্রামের একটি ঘর থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। সে উপজেলা সদর ইউনিয়নের বনিক পাড়া গ্রামের উত্তম কুমার দাসের মেয়ে ও ফুলগাজী মহিলা কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

পুলিশ ও নিহত স্বজনরা জানান, প্রতিদিনের মতো তৃষ্ণা রানীর মা মেয়েকে ঘরে রেখে দোকানে সেলাইয়ের কাজ করতে যান। বিকালে ঘরের দরজা বন্ধ দেখে অনেক ডাকাডাকি করে কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে স্বজনরা। এসময় তৃষ্ণা রানী দাসকে পরনের ওড়না গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে। পরে পুলিশকে খবর দেয়া হলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

নিহত কলেজ ছাত্রীর চাচা অর্জুন চন্দ্র দাস জানান, গত কয়েকদিন ধরে তৃষ্ণা রানী দাসের বিয়ের জন্য অন্যত্র কথাবার্তা চলছিলো। ধারণা করা হচ্ছে বিয়েতে রাজি না থাকায় হয়তো সে আত্মহত্যা করতে পারে।

ফুলগাজী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোজাম্মেল হক জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।

ফুলগাজী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এএনএম নুরুজ্জামান জানান, লাশের প্রাথমিক সুরতহাল করা হয়েছে। এটি আত্নহত্যা না অন্য কিছু ময়নাতদন্তে বিস্তারিত জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Sharing is caring!