নিজস্ব প্রতিনিধি->>

দাগনভূঞা, ফুলগাজী ও ছাগলনাইয়ায় প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী মেলার আয়োজন করা হয়েছে। স্ব-স্ব উপজেলায় প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী মেলায় আলোচনা সভা শেষে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।

দাগনভূঞায় উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের আয়োজনে উপজেলার আতাতুর্ক সরকারি আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শনিবার দিনব্যাপী প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দিদারুল কবীর রতন।

দাগনভূঞা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদা আক্তার তানিয়ার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহীন মুন্সী, দাগনভূঞা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) পার্থ প্রতিম দেব, উপজেলা প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আবু বকর আহাদ, বাংলাদেশ ডেইরী ফার্মাস এসোসিয়েশনের দাগনভূঞা শাখার সভাপতি আবু নাছের চৌধুরী আসিফ ও পোল্ট্রি ফার্মাস এসোসিয়েশনের সভাপতি মো. আবুল বাসার।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের ভেটেরানিরি সার্জন ডা. মোহাম্মদ তারেক মাহমুদের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা প্রদর্শনী ও মেলার সদস্য সচিব ডা. মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রদর্শনীতে উপজেলার খামারিদের বিভিন্ন উন্নত জাতের পশুপাখি, ছাগল, কবুতর, প্রাণী প্রযুক্তিসহ বৈচিত্র্যময় উপভোগ্য প্রদর্শনীযোগ্য ৫০টি স্টল অংশগ্রহণ করে। দিনশেষে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জনকারী খামারিদের ছয় ক্যাটাগরিতে তিন জন করে মোট ১৮ জনকে নগদ অর্থ চেক ও সনদপত্র বিতরণ করা হয়। এতে প্রথম পুরস্কার গ্রহন করেন আয়েশা ডেইরী এন্ড ফ্যাটেনিং ফার্ম এর মালিক আবু নাছের তুহিন।

এদিকে শনিবার সকালে ফুলগাজী উপজেলা চত্বরে দিনব্যাপী প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন ফুলগাজী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান উপজেলা ও আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল আলিম। ফুলগাজী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুলতানা নাসরিন কান্তার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএনএম নুরুজ্জামান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবুল আলম আজমীর, বিআরডিবি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবির।

প্রানীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. হরিকমল মজুমদারের সঞ্চালনায় প্রদর্শনীতে প্রায় ৩৪টি স্টলে বিভিন্ন জাতের গরু, ছাগল, ভেড়া, হাস, মুরগী ও বিভিন্ন ধরনের পাখী প্রদর্শনী করা হয়। প্রদর্শনীতে উন্নত জাতের দুটি গাভী এনে প্রথম পুরস্কার গ্রহণ করলেন জিএম হাট ইউনিয়নের খামারি নাছির উদ্দিন শিপন।

উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. হরি কমল মজুমদার বলেন, দেশ স্বাধীনের পর থেকে এই দেশে বিভিন্ন জাতের পশুপালন বিষয়ে আমরা ব্যাপক সাফল্য লাভ করেছি। হাঁস-মুরগীর ডিম উৎপাদনে আমরা লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করেছি। দুধ উৎপাদনেও প্রায় লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের পথে। তাই প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনীর মাধ্যমে খামারিরা যাতে উন্নত প্রজাতির গবাদিপশু ও পাখি লালন-পালনে উদ্বুদ্ধ হয় এবং এর সুফল জনগণের মাঝে পৌঁছে দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

অপরদিকে ছাগলনাইয়া সরকারি পাইলট হাই স্কুল মাঠে প্রাণী সম্পদ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। ছাগলনাইয়া উপজেলা প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের উদ্যোগে প্রাণী সম্পদ প্রদশর্নী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী সোহেল।

ছাগলনাইয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া তাহেরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন ছাগলনাইয়া পৌরসভার মেয়র এম মোস্তফা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) হোমরা ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল হক মজুমদার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিবি জুলেখা শিল্পি,রাধানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল হক মাহবুব।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ছাগলনাইয়া উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. রফিকুল ইসলাম। প্রদর্শনীতে গরু, ছাগল, হাঁস-মুরগী, কবুতরের স্টল প্রদানকারী খামারীদের নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়।

Sharing is caring!