দাগনভূঞা প্রতিনিধি->>
ফেনীর দাগনভূঞায়  সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ আলিপুর আল-জামিয়াতুল ইসলামিয়া আব্দুল ইবনে আব্বাস(রাঃ)মাদ্রাসার শিক্ষক সাইদুর রহমান (২৪) এর বিরুদ্ধে এক ছাত্রকে(১১) বলাৎকারের ঘটনায় বৃহস্পতিবার থানায় মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী ছাত্র”র মা।  

মামলার বিবরণে জানা যায়,গত ৩০ মার্চ রাতে ১১বছর বয়সি মাদ্রাসার এক ছাত্রকে তার নিজের রুমে বলাৎকার করেছেন শিক্ষক সাইদুর রহমান। পরবর্তীতে বিষয়টি কাউকে জানালে ছাত্রকে মারধরের হুমকি দেন অভিযুক্ত শিক্ষক সাইদুর। গত ২৩ রমজান শিশুটি ঈদের ছুটিতে মাদ্রাসা থেকে বাড়ি আসলে পরবর্তীতে গত ১ জুন মাদ্রাসায় যাওয়ার বললে কান্নাকাটি করতে থাকে ওই শিক্ষার্থী। পরে তার মা বিষয়টি শুনে মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল নুরুল হক কে অবগত করলে তারা বিষয়টি সমাধান করবে বলে জানায়।  ঘটনা জানাজানির পর অভিযুক্ত শিক্ষক মাদ্রাসা থেকে পালিয়ে যায়। অভিযুক্ত শিক্ষক সাইদুর সিলেট জেলার বিয়ানীবাজার পৌরসভার পশ্চিম ফতেপুর গ্রামের আবুল কালামের ছেলে।

অভিযোগ রয়েছে মাদ্রাসা প্রিন্সিপাল নুরুল হক ও ম্যানেজিং কমিটির সহযোগিতায় মুচলেকা দিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করা হয়।
এ ব্যাপারে মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল নুরুল হকের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান মুচলেখা দিয়ে শিক্ষককে ছেড়ে দেওয়ার বিষয়টি সত্য নয়। ঘটনা শোনার পর অভিযুক্ত পালিয়ে যান।

দাগনভূঞা থানার ওসি ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, মুচলেকা দিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে ছেড়ে দেওয়া বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। এছাড়া নির্যাতিত শিশুটির শারীরিক পরীক্ষার জন্য আজ বৃহস্পতিবার ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। একই সাথে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেপ্তার চেষ্টা চলছে।

Sharing is caring!