সদর প্রতিনিধি->>

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া করায় ফেনী সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়নের সোনামিয়া মেস্তরি বাড়ির দরজা জামে মসজিদের ইমাম মেহরাজুল ইসলামকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। ফাজিলপুর ইউনিয়নরে ৭নং ওয়ার্ড সদস্য মঞ্জুর আলম সবুজ ও মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি নুরুল আফসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি নুরুল আফসার জানান, করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়ার জন্য গত ১২ এপ্রিল বাদ আসর সোনামিয়া মেস্তরি বাড়ির দরজা জামে মসজিদে দোয়ার আয়োজন করেন ফেনী সদর উপজেলার পশ্চিম ফাজিলপুর ৭নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শহীদ। দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন মসজিদের ইমাম মেরাজুল ইসলাম। স্থানীয়দের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে তিনি (মসজিদ কমিটির সভাপতি নুরুল আফসার) এ বিষয়ে হুজুরকে কৈফিয়ত তলব করেন।

কমিটির সভাপতি নুরুল আফসার জানান, মসজিদের ইমাম মেরাজুল ইসলাম পাশবর্তী ছনুয়া ইউনিয়নের ছনুয়া গণিয়া মাদ্রাসার ছাত্র। তাদের মসজিদের পেশ ইমাম না থাকায় ওই মাদ্রাসা থেকে কিছুদিনের জন্য এক ছাত্র এই মসজিদে ইমামতি করার জন্য পাঠানো হয়। সে সুদাবে মেহরাজুল ইসলাম মসজিদে ইমামতি করছিলেন। এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া করায় স্থানীয় মুরুব্বী ও সরকার দলীয় রাজনৈতিক দলের উর্দ্ধতন নেতাদের পরামর্শে এলাকার শৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে ইমামকে ওই মসজিদে নামাজ না পরাতে বলা হয়েছে। তাকে চাকরি থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

ফাজিলপুর ইউনিয়নরে ৭নং ওয়ার্ড সদস্য মঞ্জুর আলম সবুজ জানান, মেহরাজুল ইসলাম সোনামিয়া মেস্তরি বাড়ির দরজা জামে মসজিদের পেশ ইমাম। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ওই মসজিদের ইমামতি করছিলো। করোনা আক্রান্ত খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া মোনাজাত করায় তাকে মসজিদ কমিটি অব্যাহতি দিয়েছেন বলে আমি অবগত আছি।

ফেনী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ বাহার ও সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলাল জানান, ফাজিলপুর ইউনিয়নের সোনামিয়া মেস্তরি বাড়ির দরজা জামে মসজিদের ইমাম মেহরাজুল ইসলামকে অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। জেলা বিএনপি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

Sharing is caring!