শহর প্রতিনিধি->>

ফেনী পৌরসভার নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ভোট হতে যাওয়া ৮টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৬টি ওয়ার্ডে বিএনপির একাধিক প্রার্থী রয়েছে। একটি ওয়ার্ডে জাতীয় পার্টি ও আরেকটি ওয়ার্ডে স্বতন্ত্র থাকলেও ওই দুটি ওয়ার্ডে বিএনপির কোন প্রার্থী নেই।

সূত্র জানায়, পৌরসভা নির্বাচনে ১৮টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ১০টি ও সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৫টিতে বিএনপি প্রার্থী দিতে পারেনি। কাউন্সিলর পদে ভোট হতে যাওয়া ১০নং ওয়ার্ডে জেলা যুবদলের যুগ্ম-সম্পাদক ফারুক উল্যাহ মজুমদার, ১২নং ওয়ার্ডে সদর উপজেলা শ্রমিক দল সভাপতি মোকছেদুল আলম টিপু, জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি নিজাম উদ্দিন সোহাগ, ১৪নং ওয়ার্ডে যুবদল নেতা এম. নুরুল ইসলাম ও জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম-সম্পাদক তাজুল ইসলাম পাভেল, ১৫নং ওয়ার্ডে ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান ও যুবদল নেতা মাঈন উদ্দিন মায়া, ১৭নং ওয়ার্ডে জেলা ছাত্রদল সভাপতি সালাহউদ্দিন মামুনের ভাই নাছির উদ্দিন খোকন ও যুবদল নেতা মো. বেলাল হোসেন, ১৮নং ওয়ার্ডে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক সালেহ মোহাম্মদ কাউছার এলিন ও সাইবার ইউজার দল আহবায়ক শরীফুল ইসলাম রাসেল, সংরক্ষিত ৫নং (১৩, ১৪ ও ১৫) ওয়ার্ডে বিএনপি প্রার্থী রোকসানা আক্তার প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন।

কাউন্সিলর পদে ভোট হতে যাওয়া ৭ ও ৮নং ওয়ার্ডে দলীয় প্রার্থীতা পেয়েও পৌর বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক জাহিদুল ইসলাম, ওয়ার্ড বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক জসিম উদ্দিন মনোনয়নপত্র জমা দেননি। ফলে ৭নং ওয়ার্ডে ভোটের লড়াই এ থাকা স্বতন্ত্র প্রার্থী ফজলুল হক তালুকদার ও ৮নং ওয়ার্ডে জাতীয় পার্টির প্রার্থী রেজাউল গনি মজুমদার পলাশকে বিএনপির মৌন সমর্থন দেয়া হতে পারে বলে দলীয় একটি সূত্র নিশ্চিত করেছেন।

জেলা বিএনপি সদস্য সচিব ও পৌরসভার মেয়র প্রার্থী আলাল উদ্দিন আলাল জানান, কৌশলগত কারনে বিএনপির একাধিক প্রার্থী মাঠে রয়েছে। সহসা বৈঠক করে ওইসব ওয়ার্ডে একক প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে। দলীয় সিদ্ধান্তের আলোকে নেতাকর্মীরা ওই প্রার্থীর পক্ষেই নির্বাচনী মাঠে কাজ করবেন।

Sharing is caring!