ঢাকা অফিস->>

স্কুল ও কলেজের গভর্নিং বডি বা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বা চেয়ারম্যান পদে কোনো ব্যক্তি পর পর দুই বারের বেশি থাকতে পারবে না—বিষয়টি বোর্ডগুলোর সংশ্লিষ্ট বিধিমালায় অন্তুর্ভুক্ত করতে পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট বোর্ডগুলোর প্রতি এ পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির বৈধতা সংক্রান্ত রিট খারিজ করে গত বছরের ২৫ ফেব্রুয়ারি রায় দেন বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ। ওই রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মো. হুমায়ুন কবির এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

অ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির জানান, স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার গভর্নিং বডি ও ম্যানেজিং কমিটি বিধিমালা ২০০৯ এর কোথাও সভাপতি বা চেয়ারম্যান কতবার হতে পারবেন সে বিষয়ে কোনো সুস্পষ্ট বিধান নেই। এ বিষয়টি নজরে আসার পর হাইকোর্ট কোনো স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসার গভর্নিং বডি বা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বা চেয়ারম্যান কোনো ব্যক্তি পরপর দুই বারের বেশি হতে পারবেন না বলে অভিমত দিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ফুলগাছা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট করেন অভিভাবক সদস্য নুরুল হক। রিটে তিনি একই ব্যক্তি বা ব্যক্তিরা ২০১৪ সাল থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় একাধিকবার সভাপতি বা সদস্য নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করেন। শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রিট আবেদনটি খারিজ করে দেন।

তবে স্কুল ও কলেজের গভর্নিং বডি বা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বা চেয়ারম্যান পদে কোনো ব্যক্তি পর পর দুইবারের বেশি থাকতে পারবেন না— বিষয়টি বোর্ডগুলোর সংশ্লিষ্ট বিধিমালায় অন্তুর্ভুক্ত করতে পরামর্শ দিয়েছেন।

Sharing is caring!