সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক->>

ফেনী জেলা শিশু কর্মকর্তা নুরুল আবছার ভূঁঞার বদলি জনিত কারণে বিদায়ী সংবর্ধনায় স্মৃতিচারণ করেছে জেলার সাংস্কৃতিক সংগঠকরা। শনিবার বিকেলে স্থানীয় সাংস্কৃতিক সংগঠন শিল্পতীর্থের আয়োজনে জেলা পরিষদের ড. সেলিম আল দীন মিলনায়তনে শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা নুরুল আবছার ভূঁঞার বিদায়ী সংবর্ধনায় প্রধান অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বিকম।

শিল্পতীর্থের সভাপতি হুমায়ুন মজুমদারের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কাজিরবাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট কাজী বুলবুল আহমেদ সোহাগ, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট পার্থ পাল চৌধুরী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ফেনীর সহ-সভাপতি জাহিদ হোসেন বাবলু ও সাধারণ সম্পাদক সমর দেবনাথ।

সাংস্কৃতিক সংগঠক পৃথ্বিরাজ চক্রবর্তী ও রহমত উল্যাহ সুমনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- কবি মনজুর তাজিম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নারায়ন নাগ, শান্তি চৌধুরী, নাসির উদ্দিন সাইমুম, আফতাবুর রহমান কুমার, কবি ইকবাল আলম, অরূপ দত্ত, মোহাম্মদ উল্যাহ, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠক নাজমুল হক শামীম, বাপ্পী পোদ্দার, এডভোকেট সাইফুদ্দিন শাহীন, উত্তম দেবনাথ, মো. শাহ আলম, এনসিটিএফের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, স্বর্ণ কিশোরীর জেলা নেতা মাহবুবা তাবাসসুম ইমা, শিশু একাডেমীর ছাত্রী ইরফাত বিনতে আবেদীন জিম প্রমুখ।

বিদায়ী কর্মকর্তা নুরুল আবছার ভূঁঞা তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘আমার নিজ জেলায় ফেনীর শিশুদের মেধা বিকাশে ও জ্ঞান অন্বেষণে দীর্ঘদিন কাজ করেছি। আমার ঐকান্তিক চেষ্টায় ফেনী শিশু একাডেমীর জন্য জমি বরাদ্ধ করতে পেরেছি। আগামী দুই/এক বছরের মধ্যে শহরের রাজাঝির দিঘীর পাড়স্থ নির্ধারিত স্থানে ফেনী জেলা শিশু একাডেমীর নিজস্ব ভবনের কাজ শুরু হবে। বদলি জনিত কারণে ফেনী ছেড়ে চট্টগ্রামে গেলেও আমার মন পড়ে থাকবে এখানেই। আমার চলার পথে কারো মনে যদি কষ্ট দিয়ে থাকি, আপনারা ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।’

সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বিকম তার বক্তব্যে বিদায়ী কর্মকর্তার অতীত কর্মকান্ড তুলে ধরে আবেগ, ভালোবাসায় অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন। নুরুল আবছার ভূঁঞা জেলা থেকে বিভাগে বৃহৎ পরিসরে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন। তিনি ফেনীতে যেমন শিশুদের আপনজন ছিল চট্টগ্রামেও শিশুদের আপনজন হয়ে উঠবেন এ আশা করেছেন।

বিদায়ী অনুষ্ঠানে শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা নুরুল আবছার ভূঁঞাকে আর্য সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ফেনী, পুবালী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান মো. মুন্নাসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ফুলেল শুভেচ্ছা জানান এবং সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সহযোগিতায় সভায় ফেনীর সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক, সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!