নিজস্ব প্রতিনিধি->>

ফেনীর লালপোল সোলতানিয়া মাদরাসার মুহাদ্দিস, গুণক দারুল উলুম মুইনুল ইসলাম মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ও হেফাজত নেতা মুফতি রহিম উল্লাহ কাসেমী ইন্তেকাল করেছেন। বুধবার রাত ১১টা ৫০ মিনিটে ঢাকা ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন।(ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে তার প্রতিষ্ঠিত গুনক মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসায় অনুষ্ঠিত হবে। পরে মরদেহ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। ৬৯ বছর বয়সী মুফতি রহিম উল্লাহ কাসেমী মৃত্যুর সময় স্ত্রী, তিন ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান।

তার ছেলে মাওলানা মাহমুদুল হাসান জানান, গত ২৪ নভেম্বর মঙ্গলবার মুফতি রহিম উল্লাহ কাসেমী নোয়াখালীর হাতিয়ায় মাহফিলের সফরে খুব অসুস্থ হয়ে পড়েন। প্রথমে মাইজদীর একটি হাসপাতালে নেয়া হয়, পরে সেখান থেকে ঢাকা বনশ্রী ইয়ামাগাতা ফ্রেন্ডশিপ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নিউমোনিয়া আক্রান্ত হওয়ার কারণে আইসিইউতে ছিলেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধিন অবস্থায় তিনি মারা যান। এসময় তার বয়স হয়েছিল । তিনি

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নবনির্বাচিত কমিটির সহকারী মহাসচিব ছিলেন মুফতি রহিম উল্লাহ। এর আগে তিনি ফেনী জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। মরহুম রহিম উল্লাহ কাসেমীরমৃত্যুর খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী ও মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী, লালপোল সোলতানিয়ার মুহতামিম মাওলানা ক্বারি মুহাম্মদ কাশেম গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন। তারা মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন। তার পরিবার ও ভক্তবৃন্দের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

Sharing is caring!