ঢাকা অফিস->>

চট্টগ্রামের কাট্টলীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ মা ও বড় ছেলের পর মারা গেলেন ছোট ছেলে সাইফুল ইসলাম (১৯)। শনিবার ভোরে রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়। এর আগে ওই দূর্ঘটনায় মা পেয়ারা বেগমের (৬০) তার বড় ছেলে মিজানুর রহমানের (৪২) মৃত্যু হয়েছিলো।

নিহতের পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রামের আকবর শাহ থানাধীন উত্তর কাট্টলীতে অবস্থানরত বড় ছেলের মিজানুর রহমানের কাছে চিকিৎসা করাতে যান দাগনভূঞা উপজেলার সিন্দুরপুর ইউনিয়নের কৌশল্যা গ্রামের মজু মাষ্টার বাড়ির মাস্টার মজিবুল হকের স্ত্রী পেয়ারা বেগম। গত ৯ নভেম্বর ছেলের ঘরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে পেয়ারা বেগম, বড় ছেলে মিজানুর রহমান, ছোট ছেলে মো. সাইফুল ইসলামসহ পরিবারের নয় সদস্য আহত হন। ওইদিন তাদের আহতাবস্থায় উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা মা পেয়ারা বেগমের (৬০) মারা যান। এর দুইদিন পর ঢাকায় শেখ হাসিনা বার্ণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার বড় ছেলে মিজানুর রহমানের (৪২) মৃত্যু হয়। ১৩ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে শনিবার ভোরে একই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় ছোট ছেলে সাইফুল ইসলাম।

নিহতদের পরিবারের এক সদস্য নাছির উদ্দিন জানান, অপর দগ্ধ মিজানুর রহমানের স্ত্রী বিবি সুলতানা (৩৬), তার কন্যা শিশু মানহা (২), মাহের, রিয়াজ (২২), জাহান (২১) ও সুমাইয়া (১৮) এখনও রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুর নবী নিহতের জানান, শনিবার বাদ এশা নামাযে জানাযা শেষে তাকে কৌশল্যা গ্রামের নিজ বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে সাইফুল ইসলামের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

Sharing is caring!