পরশুরাম প্রতিনিধি->>

পরশুরামে এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে (১৫) ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তার মা বাদী হয়ে গতকাল বুধবার রাতে পরশুরাম থানায় মামলা করার পর পুলিশ অভিযুক্ত যুবক মো. মহিন উদ্দিনকে (১৮) গ্রেপ্তার করেছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে মহিন উদ্দিনকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। মহিন উদ্দিন মির্জানগর ইউনিয়নের উত্তর কাউতলী গ্রামের বাসিন্দা। তিনি করাতকলের শ্রমিক।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার দুপুরে ওই কিশোরীর মা পাশের বাড়িতে ধান শুকাতে যান। এ সময় মহিন ওই ছাত্রীর বাবাকে খোঁজার অজুহাতে ঘরে ঢুকে তাকে একা পেয়ে ধর্ষণ করেন। এ সময় তার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে গেলে মহিন পালিয়ে যান।

এ ঘটনায় মাদ্রাসাছাত্রীর মা বাদী হয়ে পরশুরাম থানায় মহিনকে আসামি করে ধর্ষণের মামলা করলে পুলিশ বুধবার রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পরশুরাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহাদাত হোসাইন খান বলেন, আসামি মহিনকে গ্রেপ্তারের পর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।