নিজস্ব প্রতিবেদক->>

ফেনীতে সরকারের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে চলমান অবরোধ কর্মসূচি পালনের সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় ফেনী মডেল থানায় একটি মামলা হয়েছে।  

রোববার (১২ নভেম্বর) রাতে পুলিশের পরিদর্শক মো. মহিউল ইসলাম বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে এই মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, রোববার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী পল্লী বিদ্যুৎ সংলগ্ন এলাকায় অবরোধের সমর্থনে মিছিল বের করার চেষ্টা করে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা এতে পুলিশ বাধা দিলে তাদের সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়।  

বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ ১৩ রাউন্ড গুলি ও ৫ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।

এ সময় ইটের আঘাতে পুলিশের নায়েক নুর আলম ও কনস্টেবল আব্দুল্লাহ আল মামুন আহত হন।  

প্রসঙ্গত; ২৯ অক্টোবর থেকে হরতাল ও চলমান অবরোধ কর্মসূচিতে সংঘর্ষ এবং বিভিন্ন নাশকতার ঘটনায় ফেনী মডেল থানা পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত ১১টি মামলা দায়ের করেছে।

এছাড়াও বাকি পাঁচটি থানায় পাঁচটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় এ পর্যন্ত জেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক গাজী হাবিবুল্লাহ মানিক, পৌর বিএনপির আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন বাবুল, জেলা যুবদলের সভাপতি জাকির হোসেন জসিম ও সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খন্দকারসহ প্রায় ২০০ নেতা কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ফেনী জেলা পুলিশ সুপার জাকির হাসান জানান, রোববার পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।  

হরতাল-অবরোধের নামে যেকোনো ধরনের নাশকতা দমনে পুলিশ সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে বলেও জানান তিনি।