সোনাগাজী প্রতিনিধি->>

সোনাগাজীতে মাদকের ঘটনায় করা মামলায় এক বছরের সাজা পেয়েছিলেন মোহাম্মদ হাসান (৪০)। সেই সাজা থেকে বাঁচতে চট্টগ্রামে ছয় বছর পালিয়ে ছিলেন তিনি। অবশেষে গত বুধবার তিনি পুলিশের কাছে ধরা পড়েছেন।

পুলিশ বুধবার বিকেলে উপজেলার উত্তর চর চান্দিয়া এলাকার বাড়ি থেকে মোহাম্মদ হাসানকে গ্রেপ্তার করে। পরে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আজ বৃহস্পতিবার তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। তিনি উপজেলার চর চান্দিয়া ইউনিয়নের উত্তর চর চান্দিয়া এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে।

পুলিশ জানায়, ২০১৭ সালে মোহাম্মদ হাসানকে গাঁজাসহ গ্রেপ্তার করে মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। পরে জামিনে বের হয়ে আত্মগোপনে চলে যান তিনি। এরপর তিনি আর আদালতে হাজির না হয়ে গোপনে চট্টগ্রামে চলে যান। আদালত ওই মামলায় তাঁকে এক বছরের কারাদণ্ড দেন।

সোনাগাজী থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. জুয়েল সরকার বলেন, আদালত থেকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা পাওয়ার পর তিনিসহ থানার একাধিক কর্মকর্তা হাসানের খোঁজে মাঠে নামেন। কিন্তু কোথাও তাঁর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। হাসান গ্রেপ্তার এড়াতে ঘন ঘন স্থান পরিবর্তন করতেন।

এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, সম্প্রতি স্থানীয় এক ব্যক্তি পুলিশকে জানান যে হাসান চট্টগ্রামে থাকেন। মাঝেমধ্যে রাতের আঁধারে বাড়িতে এসে তিনি ভোর হওয়ার আগেই চলে যান। গত মঙ্গলবার রাতে তিনি চট্টগ্রাম থেকে বাড়িতে আসেন। পরে গতকাল বিকেলে অভিযান চালিয়ে বাড়ি থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে থানায় নেওয়া হয়।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. খালেদ হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার তাঁকে আদালতের মাধ্যমে ফেনীর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।