দাগনভূঞা প্রতিনিধি->>

দাগনভূঞা উপজেলার পূর্ব চন্দ্রপুর ইউনিয়নের একটি গ্রাম বৈঠার পাড়। গ্রামটির সীমানায় ভোলভোলা খালের ওপর নির্মিত ব্রিজের মাঝখানের অংশ ভেঙে যাওয়ায় প্রতিনিয়ত ভোগান্তি শিকার হচ্ছে আশপাশ এলাকার মানুষ। যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুই মাস আগে বৈঠার পাড় গ্রামের সীমানায় ভোলভোলা খালের ওপর নির্মিত ব্রিজটির মাঝখানের একটি অংশ ভেঙে যায়। এতে করে বাজার থেকে বড় পরিবহনে করে কোনো মালামাল আনা নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এমনকি বাজারের পাশেই রয়েছে একটি মাদরাসা ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়। এ ব্রিজ দিয়েই চন্দ্রদ্বীপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আমুভূঞার হাট মাদরাসার শিক্ষার্থীরা ঝুঁকি নিয়ে আসা যাওয়া করে। যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা আছে এতে। কোনো দুর্ঘটনার আগেই ব্রিজটি মেরামতের দাবি জানান এলাকাবাসীরা।

এ বিষয়ে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মতিউর রহমান বলেন, কয়েকমাস ধরে ব্রিজের মাঝখানের একটি অংশ ভেঙে আছে। মানুষের যাতায়াতে কষ্ট হচ্ছে। স্কুল ও মাদরাসার শিশুদের জন্য ঝুঁকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই ব্রিজটি দ্রুত মেরামত করা প্রয়োজন।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. ফুয়াদ জানান, ব্রিজের মাঝখানের গর্তের কারণে মালবাহী গাড়িগুলো অন্য রাস্তা দিয়ে ঘুরে আসতে হচ্ছে এতে পরিবহন খরচ বেড়ে যাচ্ছে।

পূর্ব চন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুদ রায়হান বলেন, ব্রিজটি মেরামত করে যাতায়াতকারীদের অসুবিধা দূর করতে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।