সদর প্রতিনিধি->>

ফেনীতে একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে অপর একটি কাভার্ড ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে চার জন নিহত ও ১২ জন আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুরে ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার দুলামিয়া রাস্তার মাথা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত চারজনের মধ্যে তিনজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তাঁরা হলেন কাভার্ডভ্যানচালক কুমিল্লার দূর্গাপুরের বাসিন্দা মো. নাজমুল (৩৫), বাসযাত্রী পিরোজপুরের নেছারাবাদের মো. ফোরকান (৫০) ও লক্ষ্মীপুরের রিয়াজ উদ্দিন (৩২)। অপর একজনের পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি বলে জানিয়েছেন মহিপাল হাইওয়ে থানার পরিদর্শক মোস্তফা কামাল।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, সড়ক উন্নয়ন ও সংস্কারকাজের জন্য ঢাকা থেকে চট্টগ্রামমুখী অংশে বন্ধ রাখা হয়েছিল। এতে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকামুখী অংশে দ্বিমুখী যান চলাচল করতে থাকে। দুপুরে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস ওই স্থানে পৌঁছালে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামমুখী একটি কাভার্ড ভ্যানের সঙ্গে মুখোমুখি সংর্ঘষ হয়। এতে দুটি গাড়ির সামনের অংশ চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে ৩ জন নিহত ও ১৩ জন আহত হন।

খবর পেয়ে মহিপাল হাইওয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহত ও আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে ফেনী সদর জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা আসিফ ইকবাল জানান, দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মহিপাল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল জানান, ওই দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে তিনজন ও হাসপাতালে নেওয়ার পর একজন মারা গেছেন। দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটি পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।