সোনাগাজী প্রতিনিধি->>

সোনাগাজী উপজেলায় ভিক্ষুক সেজে আবেদা খাতুন নামের (৮০) এক বৃদ্ধার গলায় থাকা স্বর্ণের চেন ছিনতাইয়ের সময় ৬ নারীকে মারধরের পর পুলিশে দিয়েছেন জনতা। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাশীর নগর উপজেলার ধরমন্ডল গ্রামের চনু মিয়ার স্ত্রী নাজমা আক্তার, তার মেয়ে তানিয়া আক্তার, শিরিনা আক্তার, জুনাইদের স্ত্রী আজিদা বেগম, মারুফ মিয়ার স্ত্রী জাহেরা খাতুন ও হবিগঞ্জের মাধবপুর থানার বাঘাশুরা গ্রামের আজগর আলীর মেয়ে আসমা আক্তার।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের ভাদাদিয়া গ্রামের আবুধাবি প্রবাসী সিরাজুল ইসলামের বৃদ্ধা মা আবেদা খাতুনের কাছে ভিক্ষুক সেজে ভাত চান ছয় নারী। তিনি ভাত এনে দিলে দুজন খেতে বসেন এবং অপর চারজন তার গলায় থাকা নয় আনা ওজনের স্বর্ণের চেন খুলে নেন।

এক পর্যায়ে কানে থাকা স্বর্ণের দুল খুলতে চাইলে তিনি চিৎকার শুরু করেন। স্থানীয়রা ছুটে এসে ছয় নারীকে মারধরের পর পুলিশে দেন। এ ঘটনায় বৃদ্ধার নাতি মো. হানিফ বাদী হয়ে ছয় নারীকে আসামি করে মামলা করেছেন।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ খালেদ হোসেন দাইয়্যান বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের শনিবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।