পরশুরাম প্রতিনিধি->>

পরশুরামে আবুল খায়ের লিটন (৩২) নামে একজন যুবদল নেতার ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (২৭ জুলাই) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে পরশুরাম বাজারের হাসপাতাল মোড়ে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত লিটনকে উদ্ধার করে ফেনীর একটি বেসরকারি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এসময় তাকে বহনকারী একটি প্রাইভেটকার ভাঙচুর করা হয়েছে।

আহত আবুল খায়ের লিটন পরশুরাম উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক। এ হামলার জন্য বিএনপির পক্ষ থেকে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের দায়ী করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, পরশুরাম উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক আবুল খায়ের লিটন বুধবার দুপুরে একটি কুলখানির অনুষ্ঠান শেষে পরশুরাম বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। শহরের হাসপাতাল মোড়ে পৌঁছলে ১০-১২ জন দুর্বৃত্ত হকিস্টিক ও লোহার রড দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তাকে মারধর ও বহনকারী প্রাইভেটকারটি ভাঙচুর করে।

ফেনী জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন বলেন, যুবদল নেতা লিটন একটি সামাজিক অনুষ্ঠান শেষে পরশুরাম যাওয়ার পথে ছাত্রলীগ-যুবলীগের হামলার ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন।

যুবদল নেতার ওপর হামলার ঘটনায় তিনি ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের দায়ী করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও তিনি জানান।

তবে পরশুরাম উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল আহাদ চৌধুরী বলেন, গত কয়েকদিন ধরে উপজেলা বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলছে। অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে যুবদল নেতার ওপর হামলার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

পরশুরাম মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) পার্থ প্রতিম দেব জানান, তিনি স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে এ ধরনের একটি ঘটনার কথা শুনেছেন। তবে সংশ্লিষ্টদের কেউ বিষয়টি পুলিশকে জানায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।