শহর প্রতিনিধি->>

ফেনী শহরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে আটজন রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সদর উপজেলার মহিপাল এলাকায় একটি আবাসিক হোটেল থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার আটজন হলেন কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার কুতুপালং আশ্রয়শিবিরের নুর আহম্মদের ছেলে আবদুল মন্নান (২০), হামিদ হাসানের ছেলে আবদুস শুক্কুর (১৮), আবুল কালামের ছেলে মো. জামাল হোসেন (২২), বদি আলমের ছেলে সফি আলম (২৫), আবু সৈয়দের ছেলে মোহাম্মদ ইলিয়াছ (৩০), কবির আহম্মেদের ছেলে এনামুল হক (২১), বালুখালী এলাকার আশ্রয়শিবিরের আলী হোসেনের ছেলে নবী হোসেন (১৪) ও ফজল আহম্মদের ছেলে নুর হোসেন (১৮)।

পুলিশ জানায়, তাঁরা তিন-চার দিন আগে কক্সবাজারের উখিয়া এলাকা থেকে গোপনে ফেনী আসেন। এরপর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী শহরের মহিপাল এলাকায় পাশের গোল্ড স্টার নামের একটি আবাসিক হোটেলে ওঠেন। দুপুরে পুলিশ খবর পেয়ে তাঁদের আটজনকে আটক করে মডেল থানায় নিয়ে যায়। পরে তাঁদের বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশের অভিযোগে মামলা করে।

বিকেলে তাঁদের আদালতের মাধ্যমে ফেনী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফেনী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তার আটজন ফেনীতে আবাসিক হোটেলে অবস্থান করে শহরের বিভিন্ন স্পটে মাদকদ্রব্য কেনাবেচা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনা করছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।