দাগনভূঞা প্রতিনিধি->>

দাগনভূঞা উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী কার্যালয় কোরাইশমুন্সি বাজারে স্থাপনের দাবিতে সর্বস্তরের হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ বুধবার (১ জুন) কোরাইশমুন্সি বাজারে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মাস্টার সৈয়দ আহমদের সভাপতিত্বে মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কোরাইশমুন্সি বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. ইকবাল হোসেন, কোরাইশমুন্সি বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবদুল মতিন, বাজার পরিচালনা কমিটির কোষাধ্যক্ষ শেখ আহমেদ, সাবেক কোষাধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মাওলা, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি রবিউল করিম মিন্টু, রাজাপুর ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক মিজানুর রহমান, রাজাপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টি সভাপতি আলী রাজা চৌধুরী, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি শাহআলম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম ভেন্ডার, সাপুয়া মাদ্রাসা সুপার মাওলানা আবদুর জাহের, জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা বরকত উল্লাহ, কোরাইশ মুন্সি আলিম মাদ্রাসা সাবেক শিক্ষক সেলিম উল্লাহ, রাজাপুর ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক প্রমুখ।

মাস্টার সৈয়দ আহমদ জানায়, দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী কার্যালয় না থাকায় ভাড়া ঘরেই ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম চলছে। এতে করে ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি ও সেবা গ্রহিতাদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। এজন্য রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী কার্যালয় কোরাইশমুন্সি বাজারে স্থাপনের দাবিতে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও সমাবেশে একাত্বতা পোষণ করে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের হাজার হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করে। কোরাইশমুন্সি-ফেনী সড়ক ও কোরাইশমুন্সি-তুলাতুলী সড়কের প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তার দুই পাশে নারী পুরুষরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপির ছবি সম্বলিত পেষ্টুন ও ব্যানার হাতে নিয়ে সারিবদ্ধভাবে দাবী আদায়ে মুহু মুহু স্লোগান দেয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী কার্যালয় না থাকায় ভাড়া ঘরেই ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম চলছে। এতে করে জনপ্রতিনিধি ও সেবা গ্রহিতাদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। তাই রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী কার্যালয় কোরাইশমুন্সি বাজারে স্থাপনের করার জোর দাবী জানান। তারা বলেন, রাজাপুর ইঊনিয়ন পরিষদের মধ্যবর্তী স্থান হচ্ছে কোরাইশ মুন্সি বাজার। উন্নত যোগাযোগ ও বাজারের আশপাশেই ইউনিয়নের ৬টি ওয়ার্ড রয়েছে। এছাড়াও কোরাইশ মুন্সি বাজারটি উপজেলার সর্ববৃহৎ বাজার। এ বাজার থেকে সরকার প্রতি বছর লাখ লাখ টাকা রাজস্ব পেয়ে থাকেন। তাই ইউনিয়নবাসী ও উপজেলার সুবিধাজনক স্থান হিসেবে কোরাইশ মুন্সি বাজারের পাশে ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী কার্যালয় স্থাপনের দাবী জানান এবং এবিষয়ে ফেনীর উন্নয়নের কান্ডারী সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারীর যথাযথ হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মানববন্ধন ও সমাবেশ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করে।