ডেস্ক রিপোর্ট->>

ইতিহাসের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ। এখন কেবল ক্ষণ গণনার পালা। রাত ২ টা ৪২ মিনিটে মহাকাশে উড়বে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-এক। আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরই প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-এক এর মাধ্যমে বিশ্বের সাতান্নতম দেশ হিসেবে নিজস্ব স্যাটেলাইট ওড়ানো রাষ্ট্রের তালিকায় নাম উঠবে বাংলাদেশের।

যুক্তরাষ্ট্রে থাকা প্রবাসী বাঙালিরা মুহূর্তটি স্মরণীয় করে রাখতে ইতোমধ্যে অনেকেই ফ্লোরিডায় গিয়েছেন। উৎক্ষেপণের জন্য স্যাটেলাইট, লঞ্চার ও লঞ্চিং প্যাড পুরোপুরি প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী।

আর মাত্র কয়েকঘণ্টা। এরপরই নতুন ইতিহাসের জন্ম দেবে বাংলাদেশ। জয় বাংলা-জয় বঙ্গবন্ধু লেখা সম্বলিত বঙ্গবন্ধু-১ নামে নিজস্ব স্যাটেলাইট উড়বে মহাকাশে। যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে সময় গণনাও।

ফ্লোরিডার অরল্যান্ডের কেপ কেনেডি সেন্টারের লঞ্চিং প্যাড থেকে বাংলাদেশ সময় আজ রাত ২টা ৪২ মিনিটে স্বপ্নের স্যাটেলাইট উড়বে মহাকাশের উদ্দেশ্যে। ইতোমধ্যেই বঙ্গবন্ধু ১ নেয়া হয়েছে লঞ্চিং প্যাডে। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে থাকা বাঙালি প্রবাসীরা মুহূর্তটি ধরে রাখতে জড়ো হয়েছেন ফ্লোরিডায়।

প্রবাসী একজন বলেন, ‘আমি একজন আমেরিকান প্রবাসী হয়ে এখানে এসেছি দেখতে। আমি গর্বিত। আমিও এই কালের সাক্ষী হয়ে থাকতে চাই।’
আরো একজন বলেন, ‘আমাদের দেশটা যাচ্ছে বিশ্বময়। এখন আমরা বলতে পারবো মহাকাশময় আমাদের দেশের বিস্তৃতি। এটা আমাদের জন্য অনেক আনন্দময়।’

স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপ করতে সময় লাগবে তিন মিনিট। এরপর তা রকেটে করে মহাকাশের পথে যাবে। তাই মাহেন্দ্রক্ষণের সাক্ষী হতে অপেক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় নাগরিকরাও।

সরকারের আশা, বর্তমানে বিদেশি স্যাটেলাইটের ভাড়া বাবদ যে ১৪ মিলিয়ন ডলার ব্যয় হয়, এ উপগ্রহ উৎক্ষেপণের সেই অর্থ সাশ্রয় হবে।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে ৪০টি ট্রান্সপন্ডার থাকবে, যার ২০টি বাংলাদেশের ব্যবহারের জন্য রাখা হবে এবং বাকিগুলো ভাড়া দিয়ে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন সম্ভব হবে।