পরশুরাম প্রতিনিধি->>

পরশুরামের মির্জানগর ইউপির মধুগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের গোপন কক্ষে প্রবেশ করায় পোলিং কর্মকর্তা নাসিমা বেগমকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ফেনীর পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল-মামুন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। রোববার দুই উপজেলার আট ইউপিতে তৃতীয় দফার নির্বাচন হচ্ছে। এর মধ্যে ৩ জন চেয়ারম্যান ও ১১ জন সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউপিতে ইভিএমে ভোট গ্রহণ হচ্ছে। বাকিগুলোতে ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোট দিচ্ছেন ভোটাররা।

সকাল নয়টায় ছাগলনাইয়ার কাচারি বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় বিপুলসংখ্যক মহিলা ভোটার সেখানে উপস্থিত। তাঁরা লাইনে দাঁড়িয়ে নির্বিঘ্নে ভোট দিচ্ছেন। বক্সমাহমুদ ইউনিয়নের খণ্ডল হাই উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে পাঁচজনকে আটক করা হয় কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির দায়ে।

দুপুর ১২টায় পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউপির সত্যনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয় দেখা যায়, ইভিএমে ভোট গ্রহণের কারণে কিছুটা দেরি হচ্ছে। ওই ইউপির চেয়ারম্যান প্রার্থী আলী আকবর ভূঁইয়া (আনারস) অভিযোগ করেন, আগের রাতেই নৌকা প্রতীকের নেতা-কর্মীরা তাঁর পক্ষের এজেন্টদের কেন্দ্রে যেতে নিষেধ করেন। ফলে তাঁর এজেন্টরা কেন্দ্রে উপস্থিত হননি।

এদিকে মহামায়া ইউপিতেও মশাল প্রতীক প্রার্থী নুরুল আমিন অভিযোগ করে বলেন, নৌকা প্রতীকের নেতা-কর্মীরা সকালে বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে তাঁর এজেন্টদের বের করে দিয়েছেন। এ ছাড়া বিভিন্ন অভিযোগে শুভপুর ইউপির উত্তর মন্দিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে তিনজনকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

উপজেলার মির্জানগর ইউপির ২ নম্বর ওয়ার্ডের মধুগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের গোপন কক্ষে প্রবেশ করায় পোলিং কর্মকর্তা নাসিমা বেগমকে প্রত্যাহার করেছেন কর্তব্যরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। সকাল সাড়ে ১০টায় এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলা রিটার্নিং অফিসার সাইফুল ইসলাম বলেন, ওই পোলিং কর্মকর্তা এক বৃদ্ধাকে ভোটকেন্দ্রে বাটন টিপে সহযোগিতা করেন। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসে তাৎক্ষণিকভাবে তাঁকে প্রত্যাহার করে নেন।

Sharing is caring!