ফুলগাজী প্রতিনিধি->>

ফুলগাজীতে বাপ্পি বণিক (৩১) নামের এক ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদককে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। শনিবার রাতে এই ঘটনা ঘটার পর চিকিৎসার জন্য রাতেই তাঁকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

আহত বাপ্পি বণিক ফুলগাজী সদরের ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক।

আহত বাপ্পি বণিকের বাবা সাধন চন্দ্র বণিক জানান, শনিবার রাতে তাঁদের বাড়ির পাশে এক আত্মীয়ের বিয়ে ছিল। মেহমান এগিয়ে আনতে তাঁর ছেলে পাশের কালী মন্দিরের রাস্তায় গেলে ঝিকু বণিক পেছন থেকে এসে তাঁর মাথায় আঘাত করে। খবর পেয়ে তাঁকে ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যান। সেখান থেকে ফেনী সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাতেই তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আহত বাপ্পি বণিকের মামা প্রবাসী দেবু বণিক বলেন, ‘অমির বণিকের পরকীয়ার বিষয়টি জেনে যাওয়ায় তাঁর ছেলে ঝিকু বণিক আমার ভাগিনা বাপ্পির ওপর হামলা চালায়। সে এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে।’

অমির বণিকের ভাই রবি বণিক বলেন, ‘শনিবার রাতে যে ঘটনা ঘটেছে তা শুনেছি। তবে ঘটনার সময় আমি সেখানে উপস্থিত ছিলাম না।’

অমির বণিক বলেন, ‘আমাদের বাড়ির সামনে কালী মন্দিরের পাশে বাপ্পি বণিক আমার সঙ্গে তর্কে জড়ায়। এ সময় সে আমাকে গালাগাল করছিল। এসব শুনে ঝিকু এসে বাপ্পিকে আঘাত করে। পরে আমি দ্রুত তাকে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করি।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কয়দিন আগে নির্বাচনে আমি এক নারী ইউপি সদস্য প্রার্থীর পক্ষে কাজ করি। এ কারণে তারা আমার নামে পরকীয়া প্রেমের কুৎসা রটায়।’

ফুলগাজী থানার ওসি মো. মঈন উদ্দীন জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়নি। মামলা হলে তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Sharing is caring!