ছাগলনাইয়া প্রতিনিধি->>

ছাগলনাইয়ায় তুচ্ছ ঘটনায় স্ত্রীকে গরম পানিতে ঝলসে দিয়েছে এক পাষন্ড স্বামী। লুঙ্গি শুকায়নি বলে গৃহবধূ আকলিমাকে (২৭) গরম পানিতে ঝলসে দিয়েছে পাষন্ড স্বামী মো. মোমিন। একইসঙ্গে খুন্তি দিয়ে নির্যাতন করে রক্তাক্ত করে তাকে ঘরবন্দি করে রেখেছে। ছাগলনাইয়া উপজেলার মহামায়া ইউনিয়নের এন্না পাথর গ্রামে এঘটনা ঘটেছে।

নির্যাতিত গৃহবধূর ভাই আবু মিয়া জানান, ফুলগাজীর আমজাদহাট ইউনিয়নের হার্ডি পুষ্করণী গ্রামের আবদুল হাইয়ের মেয়ে আকলিমা আক্তারের সঙ্গে প্রায় ১২ বর আগে ছাগলনাইয়ার মহামায়া ইউনিয়নের এন্না পাথর গ্রামের মোহাম্মদ নবী মিয়ার ছেলে মো. মোমিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন সময়ে নানা অজুহাতে মোমিন আকলিমাকে নির্যাতন করে আসছিলেন।

আবু মিয়া আরও বলেন, গত ৪ দিন আগে আকলিমাকে একটি লুঙ্গি ধুতে দিয়েছিল তার স্বামী মোমিন। লুঙ্গি শুকায় নাই কেন এ কারণে তাকে খুন্তি দিয়ে মারধর করে রক্তাক্ত করে মোমিন। এবং গরম পানিতে তা হাত-পাসহ বিভিন্ন জায়গায় ঝলসে দেন।

আকলিমা বলেন, ‘আমি এত নির্যাতন সইতে পারছি না। স্বামীকে বলেছি, আমাকে আর মারিয়েন না। ভালো না লাগলে আমারে ছেড়ে দেন।’

এদিকে মোমিন কাজে যাওয়ার পর গোপনে আকলিমা বাপের বাড়িতে আসার চেষ্টা করলে খবর পেয়ে মোমিন এলাকার লোক তাকে ধরে ফেলে। পরে এক বাড়িতে আশ্রয় নিলে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বারের নেতৃত্বে মোমিন তাকে ফের বাড়িতে নিয়ে যায়।

আবু মিয়া আরও বলেন, প্রতিনিয়ত আকলিমাকে নির্যাতিত করে যাচ্ছে মোমিন। এর আগে গত রোজার সময় বোনের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার কারণে তাকে ইট দিয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেন। এর আগেও আকলিমাকে মেরে তার দুটি হাত ভেঙে ফেলে। পরে বোনকে আমাদের বাড়িতে এনে দু’মাস চিকিৎসা করেছি।

মহামায়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গরীর হোসেন বাদশা বলেন, আমি স্থানীয় মেম্বারকে বলেছি বিষয়টি সমাধান করার জন্য। পারিবারিকভাবে বিষয়টি সমাধান না হলে থানায় মামলা করার জন্য নির্যাতিতার পরিবারকে বলা হয়েছে।

Sharing is caring!