নিজস্ব প্রতিবেদক->>

ফেনীতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার রোধে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করায় ৬ ব্যবসায়ীর ৪৪ হাজার ৫শ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সজল কুমার দাস লকডাউনের প্রথম দিন এ জরিমানা করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানান, স্বাস্থ্যবিধি বাস্তবায়নে ফেনী শহরতলীর লালপোল ও শহরের ট্রাংক রোড এবং মহিপাল এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে নির্দেশনা অমান্য করে হোটেল রেস্তোরাঁয় ক্রেতাদেরকে বসিয়ে খাবার পরিবেশন করায় এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকান ব্যতীত অন্য দোকান খোলা রাখায় ৬ ব্যবসায়ীর ৪৪ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

করোনা মোকাবিলায় সরকার ঘোষিত লকডাউন নিশ্চিতকল্পে জেলা প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান সজল কুমার দাস। অভিযানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ছাগলনাইয়ায় ১০ জনের ৭ হাজার ১’শ টাকা টাকা জরিমানা
এদিকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার রোধে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় ছাগলনাইয়ায় ১০ জনের ৭ হাজার ১’শ টাকা টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। সোমবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাজিয়া তাহের অভিযান চালিয়ে জরিমানা আদায় করেন। অভিযানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ফুলগাজীতে ৩ দোকানীর ১২ হাজার একশ টাকা জরিমানা
অপরদিকে ফুলগাজীতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে গণজামায়েত নিষিদ্ধ করাসহ সরকারি নির্দেশ বাস্তবায়নে অভিযানে চালিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফেরদৌসি বেগমের নেতৃত্বে পরিচালিত এ অভিযানে তিন দোকানীর ১২ হাজার একশ টাকা জরিমানা করা হয়।

ইউএনও জানান, ফুলগাজী বাজারে পরিচালিত অভিযানে মূল্য তালিকা না থাকা, স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় নিতাই বণিক ষ্টোরকে ৫ হাজার টাকা, শিপন নামে এক মাংস ব্যবসায়ীর ৫ হাজার টাকা, শামীমা ষ্টোরকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া মাস্ক ব্যবহার না করায় এক পথচারীর একশ টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় জনসাধারণকে মাস্ক ব্যবহার করাসহ স্বাস্থ্যবিধি পালন ও জরুরী প্রয়োজন ছাড়া দোকানপাটে আড্ডা ও বাজারে না আসার জন্য আহ্বান জানা ইউএনও। অভিযানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

দাগনভূঞায় ৭ জনের মোট ৩ হাজার টাকা জরিমানা
করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে সরকার নির্দেশিত বিধি নিষেধ অমান্য করায় দাগনভূঞায় ৭ জনের মোট ৩ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা আক্তার তানিয়া এ জরিমানা করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানান, সকাল থেকে দাগনভূঞা পৌর শহরের কলেজ রোড, জিরো পয়েন্ট, বাস স্টেশন, নামার বাজার, বসুরহাট রোড এবং উপজেলার দুধমুখা বাজারের বিভিন্ন পয়েন্টে একটানা এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে নির্দেশনা অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় ৫ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৫শ টাকা করে মোট ২ হাজার ৫শ টাকা এবং অপর দুই ব্যবসায়ীকে মাস্ক না পরায় ৫শ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

অভিযানে দোকান খোলা রাখায় মামুন এন্টারপ্রাইজ ফোম এন্ড পর্দা গ্যালারী, নাসিফা ফার্নিচার, মেসার্স নজরুল ষ্টোর, ওয়ার্ল্ড টেলিকম এন্ড ফারিন কসমেটিকস এবং বেলাল হোটেলকে ৫শ টাকা করে জরিমানা করা হয়। এছাড়া মাস্ক না পরায় এক সবজি বিক্রেতার ৫শ টাকা ও অপর একজনের ২শ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ইউএনও নাহিদা আক্তার তানিয়া জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে উপজেলাজুড়ে সবাইকে মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সচেতনতামূলক মাইকিং করা হচ্ছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

অভিযানে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!