শহর প্রতিনিধি->>

ফেনীতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। একুশের প্রভাত ফেরীতে ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বিএনপির দুই পক্ষ পৃথক পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।
বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক জয়নাল আবেদীন ভিপি ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলালের নেতৃত্বে একটি পক্ষ পুষ্পস্তবক অর্পন করে।

এসময় ফেনী সদর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ফজলুর রহমান বকুল, সদস্য সচিব আমান উদ্দিন কায়সার সাব্বির, পৌর বিএনপির আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন বাবুল, সদস্য সচিব মেজবাহ উদ্দিন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খন্দকার, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সাইদুর রহমান জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক এস.এম কায়সার এলিন, সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান মাহমুদ সবুজসহ বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও মহিলা দলের কয়েক শতাধিক নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে জেলা বিএনপির আহবায়ক শেখ ফরিদ বাহার, যুগ্ম আহবায়ক এম.এ খালেক, এয়াকুব নবী ও আলাউদ্দিন গঠনের নেতৃত্বে অপর একটি অংশ পৃথকভাবে পুষ্পস্তবক অর্পন করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

একুশে ফেব্রুয়ারি ভোরে প্রথমে জেলা বিএনপির আহবায়ক শেখ ফরিদ বাহারের নেতৃত্বে একটি অংশ ফেনীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এর প্রায় ঘন্টাখানেক পর বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক জয়নাল আবেদীন ভিপি ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলালের নেতৃত্বে অপর একটি পক্ষ পুষ্পস্তবক অর্পন করে।

জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন আলাল বলেন, আলাদাভাবে পুষ্পস্তবক অর্পন করলেও ফেনীতে বিএনপির সবাই ঐক্যবদ্ধ আছে। আহবায়কের সাথে আজকেও আমার সাক্ষাত ও দলীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

জেলা বিএনপি আহবায়ক শেখ ফরিদ বাহার বলেন, বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবকদল, মহিলাদল ও ছাত্রদলসহ আমাদের সব অঙ্গ-সংগঠন একসাথে ফুল দিতে গেলে শহীদ মিনারে ভীড় হবে। মহিলাদল নেত্রীরা ভীড়ে বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে পারে বিধায় আমরা আলাদাভাবে পুষ্পস্তবক অর্পন করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছি। তবে আমাদের মাঝে কোন বিরোধ নেই।

বিএনপির পৃথক কর্মসূচীতে তৃণমুল নেতাদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয় দেখা দিয়েছে। অনেক নেতারা বিষয়টিতে নীতিবাচক হিসেবে দেখছে।

Sharing is caring!