শহর প্রতিনিধি->>

ফেনী পৌরসভার সাবেক কমিশনার জয়নাল আবদীনের মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রায় ৭ হাজার এতিম শিক্ষার্থী, হাফেজ, এতিম ও আলেম ওলামাদের মধ্যহ্ন ভোজ খাওয়ালেন ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারী। বুধবার সাংসদের বাবার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে কোরআন খতম, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, মরহুমের কবর জেয়ারতসহ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজি জানান, সাংসদের বাবার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার সকালে শহরের মাষ্টারপাড়ায় হাজারী বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে মরহুমের কবর জেয়ারতের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচি শুরু করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী। এ সময় মরহুমের কবরের পাশে দাঁড়িয়ে ফাতেহা পাঠ ও পিতার আত্মার মাগফেরাত কামনায় দলীয় নেতাকর্মী ও আলেম ওলামাদের নিয়ে মোনাজাত করেন তিনি। একই সাথে মা দেল আফরোজ বেগম ও বড় ভাই জসিম উদ্দিন হাজারীর কবর জেয়ারত করেন সাংসদ।

দুপুরে লমী হাজারী জামে মসজিদে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনায় কোরআন খতম, দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে শরীক হন নিজাম উদ্দিন হাজারীসহ দলীয় নেতাকর্মীরা। পরে সাংসদরে বাড়ির প্রাঙ্গনে ফেনী সদরের প্রতিটি মাদ্রাসার প্রায় ৭ হাজার এতিম শিক্ষার্থী, হাফেজ, এতিম ও আলেম ওলামাদের জন্য মধ্যহ্ন ভোজের আয়োজন করা হয়।

ফেনী পৌরসভার কাউন্সিলর খোকন হাজারী জানান, ১৯৯৮ সালের ১৮ নভেম্বর ৮০ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন পৌরসভার সাবেক কমিশনার জয়নাল আবেদীন হাজারী। দীর্ঘ ৩৫ বছরের অধিককাল ফেনী পৌরসভার কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ইতোমধ্যে মরহুমের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ফেনী সরকারি কলেজে নবনির্মিত একাডেমিক ভবন তার নামে নামকরণ করা হয়েছে। এছাড়া সরকারি জিয়া মহিলা কলেজে গণগ্রন্থাগার ও ফেনী জিএ একাডেমীতে ভবন নির্মাণ করা হয়। ফেনী পৌরসভার মেয়র থাকাকালীন সময়ে বাবার স্মৃতি রক্ষার্থে ‘কমিশনার জয়নাল আবদীন ব্লাড ব্যাংক’ স্থাপন করেন বর্তমান সাংসদ ও মরহুমের সন্তান নিজাম উদ্দিন হাজারী।

Sharing is caring!