সোনাগাজী প্রতিনিধি->>

সোনাগাজীতে মেয়াদোত্তীর্ণ ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার বিক্রী করায় ৬টি প্রতিষ্ঠানের অর্থদন্ড করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। শনিবার দুপুরে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাছলিমা শিরিন অভিযান পরিচালনা করে ৬টি প্রতিষ্ঠান থেকে ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ড (জরিমানা) আদায় করে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানান, সোনাগাজী বাজারের জিরো পয়েন্টে মেয়াদোত্তীর্ণ দই, রসমালাই ও চকলেট পাওয়ায় বনফুলকে ৮ হাজার ও মধুমেলাকে ২ হাজার টাকা করে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জব্দৃকত খাদ্যসামগ্রীগুলো পরে জনসম্মুখে ধ্বংস করা হয়।

এদিকে উপজেলার মতিগঞ্জ বাজারে নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, মেয়াদোত্তীর্ণ দধি ও মেয়াদবিহীন ময়দা রাখার দায়ে সফি উল্লাহ হাজীর মিষ্টি মেলাকে ৫ হাজার টাকা ও হাবিব সওদাগরের মিষ্টির দোকানকে ৩ হাজার টাকা করে মোট ৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় মেয়াদোত্তীর্ণ দই ও ময়দা ধ্বংস করা হয়।

অপরদিকে বাজারের সৈকত ফার্মেসীতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ পাওয়ায় প্রতিষ্ঠানটির ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। রাস্তার ওপর রাইস মেশিন ও ফার্নিচার রেখে জনচলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করায় গোবিন্দ কুমার মালিকীয় স্টিল আলমারী মেরামতকারী দোকানকে ১ হাজার জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালত।

তাছলিমা শিরিন জানান, অভিযানে প্রতিটি দোকানে মিষ্টির প্যাকেট ওজন করে দেখা হয়। দু’একটি ছাড়া অধিকাংশ প্যাকেট ৬০-৮০ গ্রাম পর্যন্ত পাওয়া যায়। অতিরিক্ত ওজনের মিষ্টির প্যাকেট ব্যবহার না করতে ব্যবসায়ীদের নির্দেশনা দেয়া হয়। নির্দেশ অমান্য করলে পরবর্তিতে জরিমানা করা হবে।

অভিযানে উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর নুরুল করিমসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!