ঢাকা অফিস->>

আগামী বছরের মাধ্যমিক (এসএসসি) এবং উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এজন্য শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার বসার প্রস্তুতি নিতে বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী।

তবে, নির্ধারিত মাসে পরীক্ষাগুলো হবে কিনা তা নিয়ে সংশয়ের কথাও জানান শিক্ষামন্ত্রী। মাধ্যমিকের বার্ষিক পরীক্ষার বিষয়ে বুধবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে শিক্ষামন্ত্রী এক ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান।

গত বেশ কয়েক বছর ধরে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা এবং ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা এখন এমন একটি অবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছি যে, খুব বেশি সিদ্ধান্ত আমরা দিতে পারছি না। এসএসসির জন্য কি হবে, আগামী এইচএসসির জন্য কি হবে, সব বিষয়গুলো নিয়ে আবারও আপনাদের (সাংবাদিক) সঙ্গে কথা বলবো।

দীপু মনি বলেন, সব শিক্ষার্থীকে আমি বলবো যাদের সামনের বছর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা আছে, তারা অবশ্যই নিজেদের বইগুলো পড়বেন, যতদূর সম্ভব অনলাইনে অ্যাকসেস করবেন। সব ক্লাসগুলো আছে আপনারা আপনাদের পড়াশোনাগুলো চালিয়ে যান। কারণ পরীক্ষা যদি কিছুদিন পরেও হয়, আমরা সময় মতো নেওয়ার চেষ্টা করবো, সময় মতো হলে তো হলোই, না হলে কিছুদিন পরেও হয় তাহলেও কিন্তু পরীক্ষা হবে। সেক্ষেত্রে আপনাদের প্রস্তুতিটি ভালোভাবে নেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা আশা করছি, আগামী বছর করোনা পরিস্থিতি আরও অনেক ভালো অবস্থায় থাকবে ইনশাল্লাহ, তখন এই পরীক্ষাগুলো নেওয়া যাবে। পরীক্ষার্থী দয়া করে আপনাদের পড়াশোনাগুলো চালিয়ে যাবেন।

তিনি বলেন, আশা করি সময় মত সব পরীক্ষাগুলো হবে, তবে তা নির্ভর করবে কোভিড পরিস্থিতির ওপর। এই মুহূর্তে অনুমান করা সম্ভব নয় ফেব্রুয়ারির পরীক্ষা ফেব্রুয়ারিতে বা মার্চের পরীক্ষা মার্চে হচ্ছে কিনা।

Sharing is caring!