ঢাকা অফিস->>

ফেনীর ফুলগাজীতে বিএনপির কেন্দ্রঘোষিত কর্মসূচির অংশ মানববন্ধন চলাকালে হামলা চালিয়ে কর্মসূচি পণ্ড এবং থানা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি নুরুল হুদা আহাদসহ ১০ জনকে আহত করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) রাতে বিএনপির দফতরের দায়িত্বে থাকা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়।

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নিশ্চিহ্ন করতে বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের ওপর জুলুম-নির্যাতনের ধারাবাহিকতায় ফেনীর ফুলগাজীতে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচিতে হামলা করা হয়েছে। আওয়ামী যুবলীগ-ছাত্রলীগের হামলা এবং নেতাকর্মীদের আহত করার ঘটনায় আবারও প্রমাণিত হয় যে, সরকারের পায়ের নীচের মাটি সরে গেছে বলেই তারা দলীয় সন্ত্রাসী ও দুস্কৃতিকারীদের ওপর ভর করেছে। তবে ভোট ডাকাতির নির্বাচনকে আড়াল করতে দলীয় ক্যাডার বাহিনী দিয়ে এ ধরণের হামলা চালিয়ে গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে কখনোই স্তব্ধ করতে পারবে না।

তিনি বলেন, আইনের শাসন নিরুদ্দেশ হয়ে গেছে বলেই সন্ত্রাসীরা স্বাধীনভাবে অনাচারে লিপ্ত হয়ে পড়েছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালানোর লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের। গণতন্ত্রকে ভুলুন্ঠিত করার মাধ্যমে জনগণের সব আশা-আকাঙ্খাকে পদদলিত করে দেশকে একটি ভয়ঙ্কর স্বৈরতান্ত্রিক ফ্যাসিবাদী রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে। আওয়ামী শাসকগোষ্ঠীর চলমান ভয়াবহ দুঃশাসন রুখে দিতে জনগণকে আরও ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপি মহাসচিব অবিলম্বে ফেনীর ফুলগাজীতে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচির ওপর হামলাকারী দোষী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। তিনি সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত ছাত্রদল নেতা নুরুল হুদা আহাদ এবং আহত অন্যান্য নেতাকর্মীদের আশু সুস্থতা কামনা করেন।

Sharing is caring!