শহর প্রতিনিধি->>
এখন বাচ্চারা অনলাইনে ক্লাস করছে। অভিভাবকদের খেয়াল রাখতে হবে তারা কি করছে। পড়ালেখার নামে বাচ্চাদের হাতে স্মার্ট ফোন তুলে দেওয়া যাবেনা বলে মন্তব্য করেছেন জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজজামান। রোববার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে শিশু অধিকার সপ্তাহের সমাপনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমি ফেনী জেলা শাখার আয়োজনে সমাপনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোছা. সুমনী আক্তার। অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ গোলাম জাকারিয়া, ফেনী সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান বি.কম, ফেনীর ৬ উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা নুরুল আবছার ভুঁঞা, জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীসহ অভিভাবক, শিক্ষার্থীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজজামান বলেন, মা হলো শিশুর জীবনের প্রথম শিক্ষক। শিশুকে শেখাতে হবে, শেখার সুযোগ করে দিতে হবে। অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বাচ্চারা জীবনমুখী শিক্ষা পেলে যেকোন পরিস্থিতিতে নিজেদের মানিয়ে নিতে পারবে।

জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা নুরুল আবছার ভুঁঞা বলেন, করোনার কারণে এবার অনলাইনের মাধ্যমে সব প্রতিযোগিতা সম্পন্ন করা হয়েছে। এর ফলে এবার ফেনীর সব উপজেলা থেকে শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পেরেছে। তিনি বলেন, শিশু সপ্তাহ উপলক্ষ্যে ৪টি বিভাগে চিত্রাঙ্কন ও ২টি বিভাগে রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। ছয়টি বিভাগে ১৮ জনকে পুরষ্কার প্রদান করা হয়েছে।

গত ৫ অক্টোবর সোমবার “শিশুর সাথে শিশু তরে, বিশ্ব গড়ি নতুন করে” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বিশ্ব শিশু দিবস ও শিশু অধিকার সপ্তাহ-২০২০ এর উদ্বোধন হয়েছিলো।

Sharing is caring!