শহর প্রতিনিধি->>

ফেনীতে ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন। করোনা পরিস্থিতির কারণে পিছিয়ে যাওয়া জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে চলবে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত। ক্যাম্পেইনে প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী শিশুকে ১টি নীল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুকে ১টি লাল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন।

জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন-২০২০ উপলক্ষে মঙ্গলবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা অবহিতকরণ ও পরিকল্পনা সভায় সভাপতিত্ব করেনে সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন।  সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় পুষ্টিসেবা ও জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার  ডা. গাজী আহমদ হাসান তুহিন।

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মেডিকেল অফিসার সিভিল সার্জন অফিস ডা. শরফুদ্দিন মাহমুদ।  সভায় করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন সফল করার জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন বিষয় আলোচিত হয়।

সভায় জেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা ও স্বাস্থ্য বিভিাগের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ফেনী পৌরসভায় ৫টি স্থায়ী ও ১৩টি অস্থায়ী কেন্দ্রে ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে

এদিকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে ফেনী পৌরসভায় এক পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার পৌরসভা মিলনায়তনে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সিভিল সার্জন ডা: মীর মোবারক হোসাইন দিগন্ত ।

পৌরসভার প্যানেল মেয়র আশ্রাফুল আলম গীটারের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো: ইউসুফ আলী, পৌরসভার কাউন্সিলর সাইফুর রহমান ও আমির হোসেন বাহার, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিকল্পনা পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. ফাহিম হোসেন।

পৌরসভার মেডিকেল অফিসার ডা. কৃষ্ণপদ সাহার পরিচালনায় সভায়  যুব রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সহায়’র প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখেন।

আগামী ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে। এর আওতায় পৌরসভা এলাকায় ৬ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ২২ হাজারের বেশি শিশুকে ভিটামিন’ এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

মেডিকেল অফিসার ডা. কৃষ্ণপদ সাহা জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সরকারেরর নির্দেশনা অনুযায়ী পৌর এলাকার ৫টি স্থায়ী ও ১৩টি অস্থায়ী কেন্দ্রে ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

সোনাগাজীতে ৪২ হাজার শিশু খাবে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল

অপরদিকে সোনাগাজীতে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন বিষয়ে অবহিত করণ ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সভা কক্ষে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. উৎপল দাসের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম ।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট (ইপিআই) মো. জামশেদ আলম জানান, এবার উপজেলায় ৪২ হাজার ২০০ শিশুকে এক পক্ষকালীন সময়ে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। আগামী ৪ অক্টোবর থেকে উপজেলার নয়টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ২১৬টি অস্থায়ী ও একটি স্থানীয় কেন্দ্রে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৫ হাজার সুস্থ শিশুকে একটি করে নীল এবং ১২ থেকে ৫৯মাস বয়সী ৩৭ হাজার ২০০ শিশুকে একটি করে লাল ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ভিটামিন এ ক্যাপসুল ক্যাম্পেইনে ২১৭টি টিকাদান কেন্দ্রে স্বাস্থ্যসহকারীসহ ৬৫১ জন লোক এ কাজে নিয়োজিত থাকবেন।

Sharing is caring!