নিজস্ব প্রতিবেদক->>

ফেনীতে এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত এক ব্যক্তির সাজা স্থগিত করে ৮ শর্তে প্রবেশন সুবিধা দেয়া হয়েছে। ফেনীর সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মো. জাকির হোসাইনের আদালতে মঙ্গলবার এনায়েত পাটোয়ারী নামের ৫৩ বছরের এক বৃদ্ধকে এ সুবিধা দেয়া হয়। ফেনীর আদালতে এর আগে কোন কয়েদি অথবা সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে প্রবেশন সুবিধা দেয়া হয়নি বলে জানিয়েছে আদালতের ব্যাঞ্চ সহকারী শাহনুর আলম শাহীন।

শাহনুর আলম শাহীন জানান, ফুলগাজী উপজেলার উত্তর তারাকুচা গ্রামের এরশাদ পাটোয়ারীর ছেলে এনায়েত পাটোয়ারীকে ২০১৭ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি সকালে ফেনী শহরের পলিটেকনিক্যাল কলেজের গেইট থেকে দেড় কেজি গাঁজাসহ গ্রেপ্তার করে ফেনী মডেল থানা পুলিশ। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. শাখাওয়াত হোসেন দীর্ঘ তদন্ত শেষে আদালতে মামলার অভিযোগ পত্র দাখিল করে। পরে আদালত ৫ জন স্বাক্ষীর জবানবন্দী রেকর্ড করেন। মামলার দীর্ঘ বিচারকাজ শেষে আদালত আসামী এনায়েত পাটোয়ারীর এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১৫ দিনের বিনাশ্রম করাদন্ডাদেশ দেয়। রায়ের পর আসামী পক্ষের আইনজীবী সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তির বয়স বিবেচনায় আদালতের কাছে প্রবেশনের আবেদন করলে ৮ শর্তে তা মঞ্জুর করা হয়।

আদালতের একটি সূত্র জানায়, প্রবেশনের আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত যে ৮টি শর্ত দিয়েছে সেগুলো হচ্ছে- মাদক গ্রহন, পরিবহন ও বিক্রয় না করা, মায়ের দেখাশোনা করা, ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা, এতিমদের খাওয়ানো, ৬০টি গাছের চারা রোপন করা ইত্যাদি।

আদালতের ব্যাঞ্চ সহকারী শাহনুর আলম আরো শাহীন জানান, ৫৩ বছর বয়সী সাজাপ্রাপ্ত আসামী আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে জামিন নেয়ার পরও বিচার প্রক্রিয়ায় নিয়মিত অংশ নেয়। আদালতে নিয়মিত হাজিরা দিয়ে আইনকে শ্রদ্ধা করেছেন। আদালত আসামীর অপরাধের ধরণ ও বয়স বিবেচনা করে দন্ডাদেশ স্থগিত করে তাকে প্রবেশনের সুযোগ দিয়েছেন। এটি ফেনীর আদালতে প্রথম কোন নজির তৈরী করেছেন বিচারক।

Sharing is caring!