সদর প্রতিনিধি->>

ফেনীর তেমুহনীতে এক ভূয়া চিকিৎসকের কারাদন্ড ও একজনকে ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ড করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। সোমবার বিকালে সদর উপজেলা পাঁচগাছিয়া ইউনিয়নের তেমুহানী এলাকায় আলাবকস চিকিৎসায়ের তিনটি চেম্বার সীলগালা করেছে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মৌমিতা দাশ।

আদালত সূত্র জানায়, ফেনীর বিভিন্ন স্থানে দীর্ঘদিন ধরে ডাক্তার আলাবক্‌স নামে চেম্বার খুলে হাড়ভাঙার চিকিৎসা দেয়ার নামে একটি চক্র প্রতারণা করে আসছিল। এমন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার বিকালে অভিযানে বের হয় সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মৌমিতা দাশ। এসময় ফেনী শহরের শহীদ শহীদুল্লা কায়সার সড়ক ও পাচগাছিয়া ইউনিয়নের তেমুহনীতে স্থাপিত তিনটি চেম্বারে অভিযান চালানো হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক মৌমিতা দাশ জানান, অভিযানে ডাক্তার পরিচয়ে চিকিৎসা দেয়ার দায়ে ইকবাল হোসেন মামুন নামের একজনকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং মো. সাইফ উদ্দিন জুলফিকার নামের এক ব্যক্তিকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়। একই সঙ্গে তিনটি চেম্বার সিলগালা করা হয়।

অভিযানে অংশ নেয়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. তাহসিন নুর অমি জানান, আধুনিক চিকিৎসার যুগে আলাবক্স চেম্বারগুলোতে হাড়ভাঙার চিকিৎসায় দা, ছুড়ি ও কাঁচি ব্যবহার করা হচ্ছিল। এটি সবাইকে অবাক করেছে।

Sharing is caring!