নিজস্ব প্রতিনিধি->>

সোনাগাজী ও পরশুরামে মাসিক আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় অনুপস্থিত ছিলেন জনপ্রতিনিধিরা। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত সভায় একজন জনপ্রতিনিধিও উপস্থিত হয়নি। এতে শুধুমাত্র সরকারী কর্মকর্তাদের নিয়েই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভা সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকালে সোনাগাজী উপজেলা মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভায় জনপ্রতিনিধিগণ অনুপস্থিত ছিলেন। প্রায় এক ঘন্টা দেরীতে সভা শুরু হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেবের সভাপতিত্বে সভায় শুধুমাত্র উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ, থানার ওসি উপস্থিত ছিলেন। তবে সভায় ছিলেন না উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র ও উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের কোন জনপ্রতিনিধি।

সোনাগাজী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন জানান, অসুস্থতার জন্য তিনি সভায় যেতে পারেননি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব জানান, সভা সুন্দরভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সিদ্ধান্তসমুহ সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হবে।

এদিকে পরশুরাম সোনাগাজী উপজেলা মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভায়ও জনপ্রতিনিধিগণ অনুপস্থিত ছিলেন। ওই সভা প্রায় এক ঘন্টা দেরীতে শুরু হয়। অসুস্থ থাকায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সভায় অনুপস্থিত ছিলেন।
উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মং মারমা। সভায় ছিলেন না উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র ও উপজেলার ৩টি ইউনিয়নের কোন জনপ্রতিনিধি। তবে সভায় উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ ও থানার ওসি উপস্থিত ছিলেন।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মং মারমা বলেন, আওয়ামী লীগের একটি সিদ্ধান্তের কারনে জনপ্রতিনিধিবৃন্দ সভায় উপস্থিত হয়নি।

পরশুরাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন জানান, সাম্প্রতিক সময়ে জেলায় একাধিক জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে মামলা ও হয়রানীর ঘটনা ঘটেছে। ওইসব কারনে জনপ্রতিনিধিবৃন্দ উপজেলা আইনশৃংখলা সভায় যোগদান না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Sharing is caring!