ঢাকা অফিস->>
করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন দাগনভূঞার কৃতি সন্তান ঢাকার আল রাজী হাসপাতাল প্রতিষ্ঠাতা ডা. রুহুল আমিন (৭৮)। ঢাকার ফার্মগেট আল রাজী হাসপাতালের সাবেক এমডি বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন প্রফেসর ডা. রুহুল আমিন বুধবার বিকেলে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, প্রফেসর ডা. রুহুল আমিন করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় স্বজনরা তাকে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ডা. রুহুল আমিন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৪ ছেলে ১ মেয়ে রেখে গেছেন।

ডা. রুহুল আমিনের মরদেহ বুধবার রাতে তাঁর গ্রামের বাড়ি দাগনভূঞা উপজেলার জায়লস্কর ইউনিয়নের চাঁনপুর গ্রামে আনা হয়। পরে স্বল্প পরিসরে জানাযা শেষে মরদেহ বিশেষ ব্যবস্থায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

প্রসঙ্গত, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ থেকে ডাক্তারি পাশ করে চিকিৎসা পেশায় যোগ দেন ডা. রুহুল আমিন। তিনি শিক্ষকতায় যোগ দিয়ে সহকারি অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পান। পরবর্তীতে মময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ ও বরিশাল মেডিকেল কলেজে শিক্ষকতা করেন। পরে অধ্যাপক পদে পদোন্নতি লাভ করেন শিক্ষকতা পেশা চালিয়ে যান। পরে তিনি চাকুরী থেকে অবসর নিয়ে দিয়ে সৌদি আরব পাড়ি জমান। সেখান থেকে দেশে ফিরে আল রাজী হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেন। দীর্ঘদিন আল রাজী হাসপাতালের এমডির দায়িত্ব পালন করেন বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন প্রফেসর ডা. রুহুল আমিন।

Sharing is caring!