বিশেষ প্রতিবেদক->>

যুবলীগে যোগ দিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি সাবেক দুই যুবদল নেতারযুবলীগে যোগ দিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি ফেনীর দুই যুবদল সাবেক নেতার। সম্প্রতি ফেনী শহরের ইসলামপুর রোডের বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে বিস্ফোরণ মামলায় দুই জনকেই আসামি করা হয়েছে পুলিশ বাদী মামলায়।

জানা গেছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগমুহূর্তে ২০১৮ সালে জাতীয়তাবাদী যুবদল ছেড়ে আওয়ামী যুবলীগে যোগ দিয়েছিলেন দুই যুবক। এদের একজন মাঈন উদ্দিন আনসারী অপরজন হানিফ খান। যুবলীগের কোনও পর্যায়ের কমিটিতে ঠাঁই না পেলেও মিছিল-মিটিংয়ে সক্রিয় অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। সম্প্রতি ফেনী শহরের ইসলামপুর রোডের বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে বিস্ফোরণ মামলায় দুজনই আসামি হয়েছেন। ফলে এ দুই যুবক এখন টক অফ দ্যা টাউন।

সূত্র জানায়, ফেনী শহরের ইসলামপুর রোডের দলীয় কার্যালয়ের সামনে ৩১ অক্টোবর বিক্ষোভ করে নেতাকর্মীরা। পুলিশ এগিয়ে গেলে তাদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোঁড়া হয়। ঘটনার পরদিন ১ নভেম্বর ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মাহফুজুর রহমান বাদী হয়ে ৩১ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন। এদের মধ্যে ২০ ও ২১ নম্বরে যথাক্রমে মাঈন উদ্দিন আনসারী ও হানিফ খানের নাম রয়েছে। দল বদলের আগে তারা গাজী হাবিব উল্লাহ মানিক ও আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারীর নেতৃত্বাধীন জেলা যুবদলের কমিটিতে সিনিয়র সহসভাপতি ও সহসভাপতি ছিলেন।

মাঈন উদ্দিন আনসারী জানান, বিষয়টি ফেনী জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপি অবগত রয়েছেন। পুরনো তালিকা থেকে পুলিশ আমাদের নাম ঢুকিয়ে দিয়েছে।

ফেনী জেলা যুবলীগ সভাপতি ও দাগনভূঞা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন জানান, মামলার বিষয়টি তারা জেনেছেন। মাঈন উদ্দিন আনসারী ও হানিফ খান পদ-পদবীতে না থাকলেও আওয়ামী যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে সক্রিয় রয়েছেন।

জানতে চাইলে মামলার বাদী ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মাহফুজুর রহমান এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি