বিশেষ প্রতিনিধি->>

ফেনী জেলার পাইকারি বাজারে কমতে শুরু করেছে আলু ও পেঁয়াজের দাম। গত বেশ কিছুদিন ধরে এ খাদ্যপণ্যের দামে অস্থিতিশীলতা বিরাজ করলেও দাম কমায় স্বস্তি ফিরেছে।

ফেনীর পাইকারি বাজারে আলু ৫৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খুচরা বাজারে ৬০ থেকে ৬৫ টাকা বিক্রি হয়েছিল।

এছাড়া পেঁয়াজ পাইকারি বাজারে ১১৫ থেকে ১২০ টাকায়; খুচরা বাজারে ১৩০ টাকা বিক্রি হয়েছিল।

সোমবার (৬ নভেম্বর) পাইকারি বাজার ঘুরে দেখা গেছে আলু ৩৫ টাকা এবং পেয়াজ ৮৫ থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এর প্রভাব পড়তে শুরু করছে খুচরা বাজারে। এ বাজারে আলু চল্লিশ টাকা এবং পেঁয়াজ ৯০ থেকে ৯৫ টাকার মধ্যে বিক্রি হচ্ছে।

আলু এবং পেঁয়াজের দাম নাগালের মধ্যে আসায় স্বস্তি ফিরছে ক্রেতাদের মাঝে। বাদশাহ নামে এক ক্রেতা জানান, আলু এবং পেঁয়াজের দাম কমায় কিছুটা স্বস্তি ফিরে এসেছে।

আজগর হোসেন নামে এক ক্রেতা জানান, বাজারের প্রত্যেকটি দ্রব্যমূল্যের দাম যেভাবে বাড়ছে সেখানে আলু এবং পেঁয়াজের দাম কমাতে কিছুটা ভালো লাগছে। অবরোধ ও ভারত থেকে আলু আমদানির প্রভাবে এই দাম কমেছে বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

ফেনী বড় বাজারের আড়ৎদার ও হাজী হারুন সওদাগরের স্বত্বাধিকারী শাকিল জানান, কমিশন এজেন্ট, ব্যাপারীরা যেই দামে বিক্রি করতে বলে আমরা সেই দামে বিক্রি করি। বর্তমানে ভারত থেকে আলু ও পেঁয়াজ আমদানি হওয়ায় দাম কমাতে শুরু করেছে।

সামি এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী, রুহুল আমিন জানান, পেঁয়াজ এবং আলুর বাজার শক্ত সিন্ডিকেটের হাতে ছিল। তারা তাদের পছন্দমত দাম উঠানামা করাতো। ভারতীয় আলু এবং পেঁয়াজ আসায় সিন্ডিকেট ভেঙে যাওয়ায় দাম এতটা কমে এসেছে।