ডেক্স রিপোর্ট->>

করোনাভাইরাস একজনের দেহে ঢুকে শক্তিশালী হয়ে আরেক জনের দেহে আক্রমণ করে বলে গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে। চীনের ঝেজিয়াং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা এই রোগে আক্রান্ত স্বল্প সংখ্যক রোগী নিয়ে গবেষণা করেছেন। ডেইলি মেইল অনলাইনের প্রতিবেদনে এমন তথ্য দেয়া হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গবেষকরা করোনার বেশ কয়েটি মিউটেশন আবিষ্কার করেন। এর মধ্যে ১৯টির চিহ্ন আগে কখনো দেখা যায়নি।
তাদের দেওয়া তথ্য মতে, কিছু মিউটেশন মানবদেহের কোষে আক্রমণ করার ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। যেটি অন্য কোষগুলোর মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে একজনের দেহে ঢুকে শক্তি বাড়াচ্ছে করোনাভাইরাস। এরপর দ্রুত আরেকজনের শরীরে ছড়িয়ে পড়ছে।

চীনে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের নিয়ে করা এক গবেষণায় দাবি করা হচ্ছে, করোনার ৩০ বার মিউটেশনের সন্ধান পাওয়া গেছে। তার মধ্যে ১৯টি মিউটেশনই নতুন। সাউথ চাইনা মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, করোনার সবচেয়ে মারাত্মক স্ট্রেনগুলো জিনগতভাবে ইউরোপ ও নিউইয়র্কে ছড়িয়ে পড়া ভাইরাসের সঙ্গে মিল রয়েছে। আর দুর্বল স্ট্রেনগুলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যেমন ওয়াশিংটন স্টেটের মতো শহরগুলোতে ছড়িয়ে পড়া কারোনার সঙ্গে মিল রয়েছে।
বিজ্ঞানীরা বলেছেন, ভাইরাসগুলো মানুষের শরীরে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাকে ভেঙে দেওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত চরিত্র বদল করছে। আর তাতেই মৃত্যুর হার বাড়ছে। এছাড়া আক্রান্তও হচ্ছে প্রচুর পরিমাণে।
সূত্র: ডেইলি মেইল।

Sharing is caring!