নিজস্ব প্রতিনিধি->>

‘জঙ্গি-অবক্ষয়-দূর্নীতি-মানবে না এ সংস্কৃতি’ প্রতিপাদ্যে জাতীয় নাট্যোৎসবের অংশ হিসেবে ফেনীতে তিন দিনব্যাপী নাট্যোৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় নাট্যোৎসবের উদ্বোধন করেন।

জেলা শিল্পকলা একাডেমী সূত্রে জানা যায়, ১৫ হতে ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ফেনী জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে নাট্যোৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। উৎসবে চট্টগ্রামের দুইটি নাট্যদল এবং ফেনী থিয়েটার ও ফেনীর পুবালি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নাটক পরিবেশন করবে।

ফেনী থিয়েটার’র সদস্য সচিব আনোয়ার হোসেন রাজু জানান, নাট্যোৎসবে ফেনী ও চট্টগ্রামের ৪টি নাট্যদল তিনটি মঞ্চনাটক ও একটি পথ নাটক মঞ্চায়ন করবে। উৎসবে ১৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টায় চট্টগ্রামের অঙ্গন থিয়েটার ইউনিটের মঞ্চনাটক ‘শেষ বিকেলের গল্প’, ১৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে মঞ্চ নাটক ‘বাসন’ পরিবেশন করবে পুবালি সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের শিল্পীরা। ১৭ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের উচ্চারণ নাট্য সম্প্রদায় মঞ্চ নাটক ‘আর কতদিন’ এবং বিকাল ৪ টায় শহরের ট্রাংক রোডে ফেনী থিয়েটার পথ নাটক ‘ঘুণপোকা’ মঞ্চায়ন করা হবে।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী সূত্রে জানা যায়, মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটারের আয়োজনে ও সাংস্কৃতিক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর সহযোগিতায় সারাদেশে এ উৎসবের আয়োজন করা হচ্ছে। এ নাট্যোৎসবে দেশের ৬৪ জেলায় বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনভূক্ত ৪ শতাধিক দলের ৩০ হাজার নাট্যকর্মী অংশ নেবে। উৎসবে ৩০২টি মঞ্চ ও পথ নাটক অনুষ্ঠিত হবে।

Sharing is caring!