আদালত প্রতিবেদক->>
ফুলগাজীতে ‘বলদ কিনে’ দুই ক্রেতাকে কারাগারে যেতে হয়েছে। চোরাই গরু কেনার অপরাধে সোমবার কারাগারে গেলেন ক্রেতা মজিবুর রহমান (৬০) ও মো. নুরুল আমিন (৬৫)। এর আগে রোববার সন্ধ্যায় চোরাই গরুসহ তাদেরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সোমবার ফেনীর বিচারিক হাকিম আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।
গ্রেপ্তারকৃতরা ফুলগাজী উপজেলা সদর ইউনিয়নের বৈরাগপুর গ্রামের বাসিন্দা।
ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কুতুব উদ্দীন বলেন, বুধবার রাতে উপজেলার আমজাদ হাট ইউনিয়নের তালবাড়ীয়া গ্রামের ফুল বানু নামে এক নারীর দুটি বলদ গরু তাঁর গোয়াল ঘরের তালা ভেঙ্গে চুরি হয়। তিনি গরুগুলি খোঁজাখুজি করে না পেয়ে ফুলগাজী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
গত রোববার বিকেলে পরশুরাম উপজেলা সদর গরুর বাজার থেকে মজিবুর রহমান ও মো. নুরুল আমিন নামে দুই ক্রেতা ১ লাখ ১০ হাজার টাকা দিয়ে দুটি বলদ গরু কিনেন। এর কিছুক্ষন পর বলদ গরুর প্রকৃত মালিকের লোক হাজির হয়ে গরুগুলি শনাক্ত ও তাঁদের বলে দাবি করেন। খবর পেয়ে ফুলগাজী থানা পুলিশ গরুসহ ওই দুইজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। ক্রেতাদের আটকের খবর পেয়ে গরু বিক্রেতা আবুল খায়ের পালিয়ে যায়।
গ্রেপ্তারকৃতরা পুলিশকে জানায়, বাজার থেকে তাঁরা গরুগুলো জনৈক আবুল খায়েরের কাছ থেকে কিনেছেন। তবে এ বাজারে চোরা গরু বিক্রি হয়-এটা তাঁদের জানা ছিল না।

Sharing is caring!