সদর প্রতিনিধি->>
ফেনীতে অবৈধ ঔষধ তৈরীর কারখানায় র‌্যাব অভিযান চালিয়েছে। শনিবার রাতে সদর উপজেলার কাশিমপুর এলাকার আলবক্স ডাক্তার বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে এক ভূয়া চিকিৎসক ও তার সহযোগী আটক করেছে র‌্যাব। জব্দ করা হয়েছে কারখানায় তৈরী বিপুল পরিমান ঔষধ।
র‌্যাব-৭ ফেনী ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক ও সহকারী পরিচালক (সহকারী পুলিশ সুপার) মোঃ নুরুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার রাতে কাশিমপুর এলাকার আলবক্স ডাক্তার বাড়ীতে অভিযান চালায় র‌্যাব। এসময় আলাবক্স হাসপাতালে ডাক্তারী শাস্ত্র না করে ডাক্তার পরিচয়ে চিকিৎসা সনদপত্র প্রদান কালে ভূয়া চিকিৎসক মোঃ কামরুল হাসান (৪০ ) ও তার সহযোগী মহিন উদ্দিনকে (২৭) আটক করে।

আটক কামরুল সদর উপজেলার দক্ষিন কাশিমপুর আলবক্স ডাক্তার বাড়ীর হাবিবুল্লাহ ছেলে ও মহিন উদ্দিন সদর উপজেলার ছোট ধলিয়া গ্রামের নুরু মিয়া মৌলভী বাড়ীর
আবদুল জলিরের ছেলে।
র‌্যাব এসময় ভেজাল ঔষধ তৈরী করে গুদামজাত করার অভিযোগে হাসপাতাল তল্লাশী করে ২ হাজার ২৬২ পিস ভেজাল ব্যথার মলম, ২২৫ পিস তরল মলম, ৬টি ক্যাচি এবং ভেজাল ঔষধ তৈরীর বিভিন্ন সরঞ্জামাদি জব্দ করে।

র‌্যাবের জিঙ্গাসাবাদে আটকৃতরা জানায়, অভিযুক্তরা দীর্ঘদনি যাবৎ ভূয়া ডাক্তার পরিচয়ে মানুষের সাথে প্রতারনা করে চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসিছে। একই সাথে ভেজাল ঔষধ তৈরী করে অসচেতন ব্যক্তিদের কাছে উচ্চ মূল্যে বিক্রয় করে আসছে।
র‌্যাব জানায়, জব্দকৃত ভেজাল ঔষধের আনুমানিক মূল্য আনুমানিক দুই লাখ টাকা। আটকৃতদের ও জব্দকৃত মালামাল পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Sharing is caring!