ক্রীড়া প্রতিবেদক->>

আগামী ১৭ জানুয়ারি সারাদেশে একযোগে শুরু হবে ‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ’। বঙ্গবন্ধু জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ উপলক্ষে সোমবার ফেনীতে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে সকালে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে শোভাযাত্রাটিবের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়।
শোভাযাত্রায় ফেনী জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজজামান, পুলিশ সুপার নুরুন্নবী খোন্দকার, সাংবাদিক আবু তাহের, কেবিএম জাহাঙ্গীর আলম, গোলাম রাব্বানী, মো. মজিবুল হক রিপন, দেলোয়ার হোসেন ডালিম, আবদুল মোতালেব হুমায়ুন, মো. আজম চৌধুরী, বাহার উদ্দিন বাহার, দিপক চন্দ্র নাথসহ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য, ফুলবট এসাসিয়েশনের সস্য ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজন অংশ নেন।
ফেডারেশন সূত্র জানায়, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের আয়োজনে আগামী ১৭ জানুয়ারি সারাদেশে একযোগে শুরু হবে ‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ’। মুজিববর্ষ পালন উপলক্ষ্যে ৬৩ জেলাসহ দেশের ৭৮ দলের অংশগ্রহণে এই চ্যাম্পিয়নশীপের আয়োজন করা হচ্ছে। জেলা ফুটবল দলগুলোকে পদ্মা, মেঘনা, যমুনা, শীতলক্ষা, ব্রহ্মপুত্র, বুড়িগঙ্গা চিত্রা ও ও সুরমা জোনে ভাগ করা হয়েছে। সুরমা বাদে প্রতি অঞ্চলে আটটি করে দল রয়েছে। যমুনা জোনে রয়েছে ফেনী জেলা দল। এ জোনে আরও রয়েছে নোয়াখালী, চট্টগ্রাম, বান্দরবান, রাঙ্গামাটি, কক্সবাজার, খাগড়াছড়ি, লক্ষীপুর জেলা দল। জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনগুলোকে এই চ্যাম্পিয়নশীপ উপলক্ষ্যে দেড় লাখ ও সার্ভিসেস, বিশ্ববিদ্যালয় ও বোর্ডকে পঞ্চাশ হাজার টাকা অংশগ্রহণ ফি দেবে বাফুফে।
জেলা ক্রীড়া সংস্থা সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১৭ জানুয়ারি ফেনীর ভাষা শহীদ স্টেডিয়ামে বিকাল তিনটায় ৩.২ নাম্বারের প্রথম লেগে নোয়াখালীর মুখোমুখি হবে ফেনী জেলা ফুটবল দল। এরপর ২০ জানুয়ারি সোমবার ৩.২ নাম্বারে ২য় লেগে নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে ফেনী ও নোয়াখালী মোকাবেলা করবে।

Sharing is caring!