বিশেষ প্রতিনিধি->>
ফেনীর ফুলগাজীতে বিদ্যালয়ে কোচিং পড়তে যাওয়ার পথে এসএসসির এক ছাত্রীর গলায় ছুরি বসিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন করেছে একই এলাকার সোহাগ (২৬) নামে এক বখাটে। শনিবার সকাল ৯ টায় উপজেলার আনন্দপুর ইউনিয়নের পেচিবাড়িয়া গ্রামের সিলোনিয়া নদীর স্লুইচগেট নামক স্থানে এ ঘটনাটি ঘটে।পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে একটি ছুরি উদ্ধার করেছে।বর্তমানে ধর্ষিতা ছাত্রীটি মুমুর্ষ অবস্থায় ফেনী জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।

ভুক্তভোগী কিশোরির বড় ভাই জানান,সকালে বাড়ী থেকে কোচিং পড়তে বন্দুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে যাচ্ছিল তার বোন। এসময় সিলোনিয়া নদী সংলগ্ন স্লুইচগেইট নামক স্থানে পৌছালে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা একই এলাকার বখাটে সোহাগ তার বোনের মুখ চেপে ধরে গলায় ছুরি বসিয়ে পাশ্ববর্তী নির্জন স্থানে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। একপর্যায় তার শোরচিৎকার শুনে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে গেলে বখাটে সোহাগ পালিয়ে যায়।পরে তাকে মুমুর্ষ আবস্থায় উদ্ধার করে ফেনী ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আনন্দপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন মজুমদার জানান,একই ইউনিয়নের খিলপাড়া গ্রামের মৃত মনির আহম্মদের ছেলে বখাটে সোহাগ একজন মাদকাসক্ত।তার বিরুদ্ধে এর আগেও এমন একাধিক ঘটনার অভিযোগ রয়েছে।

ফেনী জেলা সিভিল সার্জন নিয়াতুজ্জামান জানান,ধর্ষনের প্রাথমিক আলামত পাওয়া গেছে।তবে মেডিকেল পরিক্ষার রিপোর্টটি হাতে আসার পর বিস্তারিত জানা যাবে।বর্তমানে তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে।

ফুলগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কুতুব উদ্দিন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।বখাটে সোহাগকে আটক করতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে।ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Sharing is caring!